ব্রেকিং নিউজ

রুশ প্রেসিডেন্টের ভুল ধরিয়ে দেয়ায় স্কুল ছাত্র বহিষ্কার, অতঃপর…

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের ইতিহাস সম্পর্কিত একটি বক্তব্যে ভুল ধরিয়ে দেয়ার কারণে স্কুল থেকে বরখাস্ত করা হয়েছে হাইস্কুলের শিক্ষার্থী নিকানোর তোলস্তিখ’কে। পূর্বাঞ্চলীয় ভ্লাদিভস্তক শহরের একটি স্কুলে একদল শিক্ষার্থীর সঙ্গে সম্প্রতি স্কুল খোলার প্রথম দিনে কথা বলছিলেন পুতিন। টেলিভিশনে প্রচার করা হয় তার ওই বক্তব্য। এতে ১৭০৯ সালের ব্যাটল অব পোলতোভা বা পোলতোভার যুদ্ধকে পুতিন ‘সেভেন ইয়ার্স ওয়ার’ হিসেবে বর্ণনা করেন। ওই যুদ্ধে সুইডেনের বিরুদ্ধে বিজয় দাবি করেন পিটার দ্য গ্রেট। কিন্তু পুতিন ভুল বলেছেন বলে তার বক্তব্য সংশোধনের অনুমতি চায় নিকানোর তোলস্তিখ। সে বলে, ওই যুদ্ধ ‘সেভেন ইয়ার্স যুদ্ধ’ ছিল না। সেটা ছিল ‘গ্রেট নর্দান ওয়ার’।

১৭০০ সাল থেকে তা স্থায়ী হয়েছিল ১৭২১ সাল পর্যন্ত। এ খবর দিয়েছে অনলাইন গালফ টুডে।
সামরিক ইতিহাসে পুতিনের ভুল ধরার মতো ঔদ্ধত্য দেখানোর জন্য স্কুলের প্রিন্সিপাল ভীষণ খেপে যান। তিনি নিকানোর তোলস্তিখ’কে তিরস্কার করেন। তাকে স্কুল থেকে বহিষ্কারও করেন। কিন্তু পরের দিনই পুতিনের মুখপাত্র দমিত্রি পেসকভ বলেছেন, প্রিন্সিপ্যালের এই সিদ্ধান্তের সঙ্গে তিনি একমত নন। নিকানোর তোলস্তিখ তো প্রেসিডেন্টকে ভুল সংশোধন করে দিয়েছে। ফলে আমাদেরকে বলা হয়েছে, কোনো শিশুকেই বরখাস্ত করা হবে না। বিশেষ করে এমন মেধাবী এবং জ্ঞানসম্পন্ন শিশুকে তো নয়ই। পুতিনও একই রকম মন্তব্য করেছেন। তিনি বলেছেন, নিকানোর তোলস্তিখের মন্তব্য কেন আমাকে অপমান করবে? তার চেয়ে তো আমার কাছে এটা আনন্দের যে, তরুণরা তার পিতৃভূমির ইতিহাস চমৎকারভাবে জানে। এটা তো গর্বের বিষয়।

Comments

comments