ব্রেকিং নিউজ

দিনাজপুরে বজ্রপাতে শিশুসহ ৭ জনের মৃত্যু

দিনাজপুর প্রতিনিধি
দিনাজপুরের পৃথক দুটি উপজেলায় বজ্রপাতে চার শিশুসহ সাতজনের মৃত্যু হয়েছে। এসময় তিন শিশু গুরুতর আহত হয়েছে।
আজ সোমবার বিকেল সাড়ে ৩টায় দিনাজপুর শহরের নিউটাউন ৮ নম্বর ব্লকের ফুটবল খেলার মাঠে ও চিরিরবন্দর উপজেলার সুকদেবপুর পীর ঢ়নপাড়ায় এই ঘটনা ঘটে।

বজ্রপাতে নিহত শিশুরা হলো- ৮ নম্বর নিউটাউন ও রেলঘুন্টি এলাকার বাসিন্দা আপন (১৬), মিম (১০), হাসান (১২), সাজ্জাদ (১৩)। এছাড়া আহত তিন শিশু হলো-মমিনুল (১৬), আতিক (১৬), সাজু (১৫)। এর মধ্যে মমিনুল ও আতিক দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসিইউটে ভর্তি রয়েছে। এছাড়া চিরিরবন্দরে নিহত তিনজন হলেন-সাইফুল ইসলামের ছেলে আব্দুর রাজ্জাক (২৮), আলতাফ হোসেনের ছেলে আব্বাস আলী (২৫), মোকছেদ আলীর ছেলে নুর ইসলাম (২৬)।

কোতয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোজাফ্ফর হোসেন জানান, দুপুর থেকে দিনাজপুর শহরে বৃষ্টি হচ্ছিল। এর মধ্যে কয়েকজন শিশু ও কিশোর ৮ নম্বর নিউটাউনের খেলার মাঠে ফুটবল খেলছিল। বৃষ্টি বেড়ে গেলে মাঠের পাশে একটি ছাউনির নিচে আশ্রয় নেয় তারা। এসময় সেই ছাউনিতে বজ্রপাত হলে ঘটনাস্থলে চারজন নিহত হয়। স্থানীয়রা গুরুতর আহত অবস্থায় আরও তিনজনকে উদ্ধার করে দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। এর মধ্যে দুইজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

এদিকে দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ার্ড মাস্টার মাসুদ রানা জানান, বজ্রপাতে চারজন নিহতের মরদেহ হাসপাতালে নিয়ে আসে স্থানীয়রা। এছাড়া তিনজন আহতদের নিয়ে আসা হয়েছে। এদের মধ্যে দুইজনকে হাসপাতালের আইসিইউ ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়েছে। তাদের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

চিরিরবন্দর থানার ওসি সুব্রত কুমার সরকার জানান, বিকেল সাড়ে ৩টায় চিরিরবন্দর উপজেলার সুকদেবপুর গুড়িয়াপাড়ায় বাড়ির পাশে একটি পুকুরে তিনজন মাছ ধরছিলেন। এসময় বজ্রপাত হলে তারা ঘটনাস্থলে মারা যান। স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের মৃত বলে ঘোষণা করেন।

এদিকে বজ্রপাতে নিহত দিনাজপুর সদর উপজেলার চারজন ও চিরিরবন্দর উপজেলার তিনজনের পরিবারকে ২৫ হাজার করে টাকা দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে জেলা প্রশাসন।

Comments

comments