ব্রেকিং নিউজ

জম্মু-কাশ্মির থেকে ভারতীয় সেনা প্রত্যাহার করা উচিত : যশবন্ত সিনহা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

ভারতের সাবেক কেন্দ্রীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও সিনিয়র বিজেপি নেতা যশবন্ত সিনহা জম্মু-কাশ্মিরে মোতায়েন সেনাবাহিনীকে ব্যারাকে ফিরে যাওয়া উচিত বলে মন্তব্য করেছেন। গতকাল (সোমবার) তিনি ওই মন্তব্য করেন।

যশবন্ত সিনহার মতে, সেখানে সন্ত্রাসবাদ বিরোধী অভিযানের দায়িত্ব পুলিশ ও সিআরপিএফের হাতে তুলে দেয়া উচিত। তাহলে সেখানকার মানুষের জন্য তা মলমের মতো কাজ করবে।   

তিনি বলেন, ‘জম্মু-কাশ্মির ইস্যুতে পাকিস্তান একটি প্রয়োজনীয় তৃতীয়পক্ষে পরিণত হয়েছে। আমাদের পক্ষ থেকে ‘বার বার ভুলের জন্য’ই এমন হয়েছে।

হায়দ্রাবাদে কাশ্মির ইস্যুতে এক আলোচনায় যশবন্ত সিনহা কাশ্মিরি জনতার সঙ্গে অবিলম্বে সংলাপে বসার ওপরে জোর দেন।

তিনি বলেন, ‘আগেই অনেক সহিংসতা হয়েছে। অনেক মানুষ তাতে প্রাণ হারিয়েছেন। এদের মধ্যে নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরাও রয়েছেন। এখন এসব শেষ করার সময়। জম্মু-কাশ্মিরে সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপে সেনাবাহিনী এগিয়ে থাকা এখন অগ্রাধিকারে পরিণত হয়েছে। গ্রাম অথবা শহর যেখানে সন্ত্রাসী ঘটনা ঘটুক সেনাবাহিনী আগে থাকছে এবং সিআরপিএফ ও পুলিশ তাদের পিছনে থাকছে।’


যশবন্ত বলেন, তিনি জম্মু-কাশ্মির এবং দেশের অভ্যন্তরে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি সামলানোর জন্য নিরাপত্তা বাহিনীর অত্যাধিক ব্যবহারের বিরোধী। সেনাবাহিনীর উচিত ব্যারাকে ফিরে যাওয়া।

তিনি বলেন, ‘কাশ্মির একটি রাজনৈতিক সমস্যা। সেখানকার মানুষদের সঙ্গে প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী সংলাপ শুরু করা উচিত। জম্মু-কাশ্মিরের অধিকাংশ মানুষ স্বাধীনতা দিবসে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ওই বার্তাকে স্বাগত জানিয়েছেন যাতে তিনি কাশ্মির সমস্যা সমাধান গুলি অথবা গালিতে নয়, বরং কাশ্মিরিদের আলিঙ্গনের মাধ্যমে সমস্যা সমাধানের কথা বলেছিলেন।’

‘কাশ্মিরি জনতা রাজনৈতিক প্রক্রিয়া শুরু হওয়ার অপেক্ষায় রয়েছে। কেন্দ্রীয় সরকার যেদিন সংলাপ শুরু করার আগ্রহ দেখাবে ও সেখানকার লোকেদের সঙ্গে আলোচনা হওয়ার কথা ঘোষণা করবে, তখন থেকে রাজ্যের পরিস্থিতির নাটকীয়ভাবে উন্নতি হবে’ বলেও যশবন্ত সিনহা মন্তব্য করেন। #

Comments

comments