ব্রেকিং নিউজ

নোয়াখালীতে অপহৃত ছাত্রী সাত মাসেও উদ্ধার হয়নি

Apoharon

আসাদুজ্জামান চৌধুরী কাজল, নোয়াখালী প্রতিনিধি:
নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ কৃষি প্রশিক্ষণ ইনষ্টিটিউটের (এটিআই) ফটক থেকে অপহৃত ছাত্রীকে (১৬) দীর্ঘ প্রায় সাত মাসেও উদ্ধার করতে পারেনি পুলিশ। এতে চরম আতঙ্কে ও হতাশার মধ্যে রয়েছে তার পরিবার। গত বছরের ১৯ সেপ্টেম্বর এটিআই’র ফটক থেকে প্রথম বর্ষের ওই ছাত্রীকে অপহরণ করা হয়।
ছাত্রীর বাবা ও মা জানান, তাদের মেয়ে কৃষি ¬প্রশিক্ষণ ইনষ্টিটিউটের ছাত্রী। অনেক স্বপ্ন নিয়েই মেয়েকে এখানে ভর্তি করিয়েছিলেন তারা। কিন্তু ভর্তির কয়েক মাসের মাথায় তাদের গ্রামের বাড়ি সেনবাগ উপজেলার উত্তর রাজারামপুর গ্রামের প্রতিবেশি যুবক প্রদীপ দাস মেয়েকে অপহরণ করে অজ্ঞাতস্থানে নিয়ে যায়। এরপর অনেক খোঁজাখুজি করেও মেয়ের সন্ধান পাওয়া যায়নি। 
ছাত্রীর বাবা-মা অভিযোগ করেন, এ ঘটনার পর বিষয়টি অভিযুক্ত প্রদীপ দাসের পরিবারকে জানালে এবং ঘটনার বিষয়ে থানায় মামলা করলে পরিবারের সদস্যরা তাঁদের উল্টো নানাভাবে হুমকি-ধমকি দেওয়া শুরু করে। যা এখনও অব্যাহত আছে। বিষয়টি পুলিশকেও জানানো হয়েছে। কিন্তু পুলিশ ভিকটিমকে উদ্ধার কিংবা অভিযুক্তদের কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি।
এ বিষয়ে বেগমগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ সাজেদুর রহমান বলেন, ওই ছাত্রীকে অপহরণের ঘটনায় জড়িত প্রদীপ দাস (২৩) ও অপর দুই সহযোগীর বিরুদ্ধে গত ২৩ ফেব্রুয়ারি আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়েছে। কিন্তু আসামিদের অবস্থান নিশ্চিত না হওয়ায় ভিকটিমকে উদ্ধার ও আসামি গ্রেফতার করা সম্ভব হচ্ছে না। এ ব্যপারে চেষ্টা অব্যাহত আছে।

নোয়াখালীর সোনাপুর বাজারে ১০টি দোকানে অগ্নিকান্ডে

 নোয়াখালী প্রতিনিধি:
নোয়াখালী শহরের সোনাপুর পৌর বাজারে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে ১০টি দোকান পুড়ে গেছে। গত মঙ্গলবার সন্ধ্যা সোয়া সাতটার দিকে এ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে। আগুনে প্রায় এক কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে ক্ষতিগ্রস্তরা দাবী করেছেন। তবে কীভাবে আগুনের সূত্রপাত হয়েছে তা তাৎক্ষনিকভাবে নিশ্চিত হওয়া যায়নি।
সোনাপুর বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সাধারণ সম্পাদক আবু নাছের ওরফে লিটন জানান, সন্ধ্যা সোয়া ৭টার দিকে হঠাৎ সোনাপুর পৌরবাজারের দক্ষিণ অংশের একটি দোকানে আগুন দেখা যায়। মুহুর্তের মধ্যে আগুন আশেপাশের দোকানে ছড়িয়ে পড়ে। প্রায় আধাঘন্টা স্থায়ী এ অগ্নিকান্ডে আসবাবপত্র, ফ্রিজ মেরামতের ওয়ার্কশপ, তুলার দোকান, জ্বালানি তেলের দোকানসহ ১০টি দোকান পুড়ে যায়। ক্ষতিগ্রস্থ ব্যবসায়ীদের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী আগুনে প্রায় এক কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে। খবর পেয়ে জেলা শহর মাইজদী ফায়ার স্টেশনের একটি ইউনিট ঘটনাস্থলে গিয়ে স্থানীয়দের সহযোগিতায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন।
জানতে চাইলে অগ্নিকান্ডের ঘটনা নিশ্চিত করেন মাইজদী ফায়ার স্টেশনের সিনিয়র স্টেশন অফিসার মো. আবদুল্যাহ্। তিনি গতকাল বুধবার বলেন, ধারণা করা হচ্ছে তুলার দোকান থেকে অগ্নিকান্ডের সূত্রপাত। তবে কিভাবে আগুন লেগেছে বিষয়টি তদন্তসাপেক্ষে নিশ্চিত করে বলা যাবে বলেন জানান তিনি।


নোয়াখালীর সূবর্ণচরে ১৫ কেজি গাঁজাসহ মাদক সম্রাট আটক

নোয়াখালী প্রতিনিধি: নোয়াখালীর সূবর্ণচরে অভিযান চালিয়ে ১৫ কেজি গাঁজাসহ মাদক স¤্রাট মো. ফারুককে (২৮) আটক করেছে জেলা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর। বুধবার (১২ এপ্রিল) ভোরে উপজেলার চরজব্বর ইউনিয়নের মধ্যম চরবাগগা গ্রামের নিজ বাড়ি থেকে তাকে আটক করা হয়। মাদক স¤্রাট ফারুক চরজব্বর ইউনিয়নের মধ্যম চরবাগগা গ্রামের ছাবেদুল হকের ছেলে। সে সূবর্ণচরে গাঁজার বিক্রির অন্যতম পাইকারী ব্যবসায়ী। 
জেলা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক মোহাম্মদ আবু রেজা মেহেদী হাসান জানান, গাঁজা ব্যবসায়ী ফারুক দীর্ঘ দিন ধরে পার্শ্ববর্তী কুমিল্লা থেকে গাঁজা এনে সূবর্ণচর উপজেলার বিভিন্ন মাদক ব্যবসায়ীদের কাছে পাইকারী দরে বিক্রি করতো। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে খবর পেয়ে বুধবার ভোরে অভিযান চালিয়ে ফারুককে নিজ বাড়ি থেকে দুইটি সিনথিটিক বস্তার মধ্যে রাখা ১৫ কেজি গাঁজাসহ তাকে আটক করা হয়। জব্দকৃত গাঁজার বাজার মূল্য আনুমানিক এক লক্ষ পঞ্চাশ হাজার টাকা। তার বিরুদ্ধে চরজব্বর থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে একটি মামলা দায়ের করে পুলিশে হস্তান্তর করা হয়েছে।

 

 

Comments

comments