ব্রেকিং নিউজ

শিক্ষক শ্যামল কান্তিকে অভিলম্বে গ্রেপ্তার করতে হবে: খেলাফত আন্দোলন

দ্য বিডি এক্সপ্রেস ডটকমঃ

‘ধর্মীয় অনুভূতিতে’ আঘাতের অভিযোগে নারায়ণগঞ্জের পিসি সাত্তার লতিফ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শ্যামল কান্তি ভক্তকে গ্রেপ্তার ও তার ফাঁসির দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলন।

শুক্রবার গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে দলটির যুগ্ম মহাসচিব ও ঢাকা মহানগর আমির মাওলানা মুজিবুর রহমান হামিদী এ দাবি জানান।
বিবৃতিতে হামিদী বলেন, ৯২% মুসলমানের দেশে অমুসলিমদের মাধ্যমে বার বার পবিত্র ইসলাম ধর্মের অবমাননা জাতিকে ভাবিয়ে তুলেছে। নাস্তিকরা পরিকল্পিতভাবে এদেশে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করতে মুসলমানদের ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত হেনে  চলছে। আল্লাহ ও রাসূল সা. কে অবমাননা করায় ইসলাম বিদ্বেষী মহল শিক্ষক নামের কলঙ্ক শ্যামল কান্তিকে পুরষ্কৃত করার চক্রান্ত করছে। ইসলাম ধর্মের অবমাননাকারী শিক্ষক নামের কলঙ্ক নারায়ণগঞ্জ বন্দর স্কুল শিক্ষক শ্যামল কান্তিকে গ্রেপ্তার করে ফাঁসি দিতে হবে।

তিনি বলেন, এদেশকে রামরাজ্য বানানোর স্বপ্ন বাস্তবায়ন হতে দেয়া হবে না। ইসলাম ধর্মের অবমাননা করলেও ইসলাম বিদ্বেষী চিহ্নিত নাস্তিক্যবাদী মহল শ্যামল কান্তিকে রক্ষায় উঠে পরে লেগেছে। জনরোষ থেকে শ্যামলকে বাঁচাতে স্থানীয় এমপি সেলিম ওসমান সামাজিক বিচার হিসেবে সেই দিন শ্যামল কান্তিকে কান ধরে ওঠবস করিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করেছে। অন্যথায় উদ্ভূত পরিস্থিতি আরো ভয়াবহ রুপ ধারণ করত এবং গণধোলাইয়ে অনেক মানুষের প্রাণহানিও হতে পারত। শ্যামলের স্বপ্রণোদিত শাস্তি স্থানীয় এমপি প্রয়োগ করেছেন। এই প্রাথমিক বিচারকে ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করার সুযোগ নেই।

তিনি আরও বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসর ড. মাহবুব উল্লাহসহ অনেক শিক্ষককে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন স্থানে লাঞ্ছিত করা হয়েছে। তখন তো কেউ আন্দোলন করেননি। ইসলামের দুশমন শ্যামলকে পুরষ্কৃত করতে এখন নাস্তিক্যবাদী মহলের আন্দোলন চলছে। নাস্তিকদের প্রতিষ্ঠিত করার যে কোনো চেষ্টাকে প্রতিহত করা হবে। 

Comments

comments