ব্রেকিং নিউজ

জয় অপহরণ মামলায় সাংবাদিক শফিক রেহমান গ্রেপ্তার

shafiq rahman-thebdexpress

দ্য বিডি এক্সপ্রেস ডেস্কঃ

বিশিষ্ট সাংবাদিক ও দৈনিক ‘যায় যায় দিন’ পত্রিকার সাবেক সম্পাদক শফিক রেহমানকে গ্রেফতারের কথা স্বীকার করেছে পুলিশ।

ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (দক্ষিণ) উপকমিশনার শফিক রেহমানকে গ্রেপ্তারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, গত বছর পল্টন থানায় দায়েরকৃত একটি মামলায় শফিক রেহমানকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে।

উপকমিশনার মশরুকুর রহমান খালেদ জানান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছেলে ও তার তথ্যপ্রযুক্তিবিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়কে অপহরণ ও হত্যা চেষ্টার ঘটনায় গত বছর পল্টন থানার একটি মামলায় তাকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে।তাকে আদালতে হাজির করে রিমান্ডের আবেদন করা হবে বলেও জানান তিনি।

এর আগে শফিক রেহমানের স্ত্রী ও ডেমোক্রেসিওয়াচের নির্বাহী পরিচালক তালেয়া রেহমান সাংবাদিকদের জানিয়েছিলেন, সকাল সাড়ে ৮টার দিকে একটি টেলিভিশনের সাংবাদিক পরিচয়ে বাসায় ঢোকেন তিন থেকে চারজন লোক। এরপর তারা নিজেদেরকে গোয়েন্দা পুলিশের সদস্য পরিচয় দিয়ে শফিক রেহমানকে বলে ‘আমাদের সঙ্গে যেতে হবে’।পরে তারা শফিক রেহমানকে নিয়ে যায়।

তালেয়া রেহমান বলেন, শফিক রেহমানকে গাড়িতে করে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। যারা নিয়ে গেছে, তাদের মধ্যে একজনের পোশাকের পেছনে ‘ডিবি’ লেখা ছিল।

এদিকে, শফিক রেহমানকে গ্রেফতারের তীব্র নিন্দা জানিয়ে অবিলম্বে তাকে মুক্তি দেয়ার দাবি জানিয়ে বিএনপি। 

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার অন্যতম উপদেষ্টা শফিক রেহমান সম্প্রতি অনুষ্ঠিত বিএনপি’র ষষ্ঠ জাতীয় কাউন্সিলের আন্তর্জাতিক বিষয়ক প্রস্তুতি উপ কমিটির আহবায়ক ছিলেন।

শফিক রেহমান নানা সংবাদ মাধ্যমে কাজ করলেও গত শতকের ৮০ এর দশকে সাপ্তাহিক যায়যায়দিন সম্পাদনার মধ্য দিয়ে ব্যাপক পরিচিতি পান। সাপ্তাহিক যায়যায়দিন-এ এরশাদ সরকারের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়ে তিনি খ্যাতি লাভ করেন। সামরিক শাসক এইচ এম এরশাদের রোষানলে পড়ে তাকে বাংলাদেশ ছাড়তেও হয়েছিল। প্রায় ছয় বছর লন্ডনে নির্বাসিত থাকার পর এরশাদের পতন হলে বাংলাদেশে ফেরেন বিবিসিতে কাজ করেন।

এছাড়া, তিনি বাংলাদেশ টেলিভিশন-এ ‘লাল গোলাপ’ নামক একটি টক শো উপস্থাপনা করতেন। 

২০১৫ সালের আগস্ট মাসে পল্টন থানায় সজীব ওয়াজেদ জয়কে হত্যা চেষ্টার ষড়যন্ত্রের অভিযোগে একটি মামলা (নং-১) হয়। ওই মামলার তদন্ত কর্মকর্তা আজ সকালে শফিক রেহমানকে গ্রেপ্তার করেন। তাকে আদালতে হাজির করে রিমান্ডের আবেদন করা হবে বলেও জানান মাশরুকুর।

Comments

comments