ব্রেকিং নিউজ

সিরিয়ায় স্পেশাল ফোর্স মোতায়েন করেছে রাশিয়া; পালমিরায় ঢুকে পড়েছে সেনাবাহিনী

কর্নেল জেনারেল আলেক্সান্ডার দিভোরনিকভ

সিরিয়ায় স্পেশাল ফোর্স মোতায়েন করেছে রাশিয়া। একজন পদস্থ রুশ সেনা কমান্ডার জানিয়েছেন, ‘শত্রুর অবস্থান শনাক্তকরণসহ আরো কিছু বিশেষ দায়িত্ব’ দিয়ে এই বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে। এর ফলে এই প্রথম রাশিয়ার পক্ষ থেকে সিরিয়ায় যুদ্ধ করার জন্য স্থলবাহিনী মোতায়েনের খবর নিশ্চিত করা হলো।

সিরিয়ার দায়িত্বপ্রাপ্ত রুশ সেনা কমান্ডার কর্নেল জেনারেল আলেক্সান্ডার দিভোরনিকভ বলেছেন, “সিরিয়ার ভূখণ্ডে যে আমাদের স্পেশাল অপারেশন্স ফোর্স কাজ করছে সেকথা আমি অস্বীকার করতে চাই না। রাশিয়ার বিমান হামলার আগে তারা সন্ত্রাসীদের অবস্থান শনাক্ত করছে যাতে দূরবর্তী এলাকাগুলোতে নির্ভুলভাবে হামলা চালানো যায়। এ ছাড়া, অন্য বিশেষ কিছু দায়িত্বও তারা পালন করছে।”

রাশিয়ার এই সেনা কমান্ডার দেশটির ‘রুসিয়াসকায়া গেজেটা’ পত্রিকাকে দেয়া সাক্ষাৎকারে আরো জানিয়েছেন, সিরিয়ায় বর্তমানে কাজ করছেন অনেক রুশ সামরিক উপদেষ্টা। তারা সিরিয়ার সেনাবাহিনীকে সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে যুদ্ধের কৌশল শেখানোর পাশাপাশি রুশ সমরাস্ত্র পরিচালনার কৌশলও শিখিয়ে দিচ্ছেন।

সিরিয়া থেকে রাশিয়ার সেনাবাহিনী ও সামরিক সরঞ্জামের বেশিরভাগ অংশ সরিয়া নেয়ার খবর প্রকাশিত হওয়ার কিছুদিন পর এ খবর জানালেন রুশ সেনা কমান্ডার।

শত্রুর যেসব অবস্থান বিমান বা স্যাটেলাইট থেকে দেখা যায় না সেগুলো সম্পর্কে তথ্য সংগ্রহ করার লক্ষ্যে সাধারণত উচ্চ-প্রশিক্ষিত স্পেশাল ফোর্স মোতায়েন করা হয়। 

সিরিয়ার রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন আজ জানিয়েছে, বিমান বাহিনীর সহায়তায় সেনাবাহিনী দায়েশ সন্ত্রাসীদের পরাস্ত করে শহরে ঢুকতে সক্ষম হয়। এরইমধ্যে সরকারি সেনারা পালমিরা শহরের উত্তর ও পশ্চিমাংশের নিয়ন্ত্রণ নিয়েছে। এর আগে সেনারা পালমিরার উপকণ্ঠের গুরুত্বপূর্ণ এলাকাগুলো মুক্ত করেছে। শহরটি হোমস প্রদেশে অবস্থিত।

পালমিরায় সেনাদের প্রবেশের আগে হোমস প্রদেশের গভর্নর তালাল বারাজি জানিয়েছেন, সেনারা তিন দিক থেকে শহরের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে।

Comments

comments