ব্রেকিং নিউজ

‘শিগগিরই চিহ্নিত ১৯৫ জন যুদ্ধাপরাধীদের বিচার বাস্তবায়ন দাবি’

নিজস্ব প্রতিবেদক:

শিগগিরই পাকিস্তানের চিহ্নিত ১৯৫ জন যুদ্ধাপরাধীদের বিচার ও সকল সম্পদ দেশে আনার দাবি জানিয়েছেন নৌ পরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খান।
তিনি বলেন, বিচারকে আরো তরান্বিত করতে একটি দ্রুত বিচার আইন করতে হবে। এর মাধ্যমে শুধু পাকিস্তানের ১৯৫ জন নয় বাংলাদেশে অবস্তানরত তাদের সকল দোষরদেরও এ বিচারের আওতায় নিয়ে আসতে হবে। 
বুধবার রাজধানীর কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে আন্তর্জাতিক যুদ্ধাপরাধ গণবিচার আন্দোলনের আয়োজিত এক সমাবেশে সভাপতির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। 
শাজাহান খান বলেন, আগামী ২ মাস ধরে সারা বাংলাদেশে এ বিচারের দাবিতে সভা সমাবেশ চলবে। সর্বশেষ ৩১ মার্চ সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সমাবেশ করা হবে। 
তিনি বলেন, স্বাধীনতা যুদ্ধে পরাজিত শক্তি বিএনপি-জামায়াত দেশকে অস্থিতশীল করার জন্য নানা ষড়যন্ত্র চালিয়ে আসছে। সভা-সমাবেশ চলাকালে তারা যেন কোন প্রকার বিশৃঙ্খলা তৈরি করতে না পারে সে ব্যাপারে সকলকে সতর্ক দৃষ্টি রাখতে হবে। 
তিনি আরো বলেন, যখনই দেশে কোন সংকট এসেছে স্বাধীনতার শক্তি সেটি সুশৃঙ্খলভাবে মোকাবেলা করেছে। ভবিষ্যতেও এ জাতীয় কোন সমস্যা তৈরি হলে সেটি শক্ত হাতে প্রতিহত করা হবে। 
এসময় আরো বক্তব্য রাখেন, আন্তর্জাতিক যুদ্ধাপরাধ গণবিচার আন্দোলনের সদস্য সচিব ওসমান আলী, সহকারী সদস্য সচিব রোকেয়া পারভীন, বাংলাদেশ কর্মচারী সমিতির সাধারন সম্পাদক মঞ্জুরুল হক, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়ন মঞ্চের সাধারন সম্পাদক আবদুল মালেক, বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের সাংগঠনিক সম্পাদক মোখলেছুর রহমান প্রমুখ।

 

Comments

comments