ব্রেকিং নিউজ

‘ওয়ান ইলেভেনের’ নির্যাতনে মৃত্যুবরণ করেন কোকো–ফখরুল

Fakhrul-thebdexpress

দ্য বিডি এক্সপ্রেস.কম।।

শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের ছোট ছেলে আরাফাত রহমান কোকো ১/১১’র নির্যাতনে অসুস্থ হয়ে মারা গেছেন বলে মন্তব্য করেছেন দলটির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। গতকাল রবিবার বিকেলে রাজধানীর ভাসানী মিলনায়তনে বিএনপি আয়োজিত আরাফাত রহমান কোকোর ১ম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা ও দোয়া মাহফিলে তিনি একথা বলেন। দোয়া মাহফিল শেষে ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর আরাফাত রহমানের স্মরণে ‘স্মৃতির পাতায়’ নামে একটি বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করেন। মির্জা ফখরুল বলেন, আরাফাত রহমান কোকো বাংলাদেশের মানুষের কাছে এত জনপ্রিয় ছিল যা তার জানাজা থেকে বুঝা যায়। বাংলাদেশে যখন ভয়ংকর পরিস্থিতি বিরাজ করছিল সেই অবস্থায় তার জানাজায় লাখ লাখ লোক অংশগ্রহণ করেছিল। তিনি বলেন, রাজনীতি না করেও আরাফাত রহমান কোকো জনগণের কাছে যে জনপ্রিয় ছিল তার প্রমাণ তার জানাজায় লাখ লাখ লোকের অংশগ্রহণ। এ থেকে প্রমাণিত হয় জনগণের আশা-আকাক্ষার ভরসাস্থল জিয়া পরিবার। আলোচনা ও দোয়া মাহফিল পরিচালনা করেন ঢাকা মহানগর ওলামা দলের সভাপতি আলমগীর হোসেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন বিএনপি স্থায়ী কমিটির সদস্য তরিকুল ইসলাম, নজরুল ইসলাম খান, যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, আমান উল্লাহ আমান, সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন, শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক খায়রুল কবির খোকন, যুবদলের সভাপতি মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, বিএনপির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুস সালাম, সহ দফতর সম্পাদক আব্দুল লতিফ জনি, তাইফুল ইসলাম টিপুসহ ঢাকা মহানগর বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরা। এদিকে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার ছোট ছেলে আরাফাত রহমান কোকোর প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে রবিবার রাজধানীর বনানী কবরস্থানে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। এ সময় তার সঙ্গে দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান, সহ-প্রচার সম্পাদক এমরান সালেহ প্রিন্স প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

গত বছর ২৪ জানুয়ারি মালয়েশিয়ার একটি হাসপাতালে নেওয়ার পথে মৃত্যুবরণ করেন আরাফাত রহমান কোকো। রাজধানীর বনানী কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়। সেই সময় মালয়েশিয়াতে তার সঙ্গে ছিলেন স্ত্রী শর্মিলা রহমান সিঁথি, দুই মেয়ে জাফিয়া রহমান ও জাহিয়া রহমান।

Comments

comments