ব্রেকিং নিউজ

২০২১ সালেই রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রে উৎপাদন শুরু হবে

Atomic-thebdexpress

দ্য বিডি এক্সপ্রেস.কম

২০২১ সালেই রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রে উৎপাদন শুরুর টার্গেট নির্ধারণ করেছে সরকার। মানুষকে মানসম্মত বিদ্যুৎ দেয়ার অঙ্গীকার থেকেই ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সরকার এই লক্ষ্য ঠিক করেছে। এখনো চূড়ান্ত চুক্তি না হলেও আগামী ৬ মাসের মধ্যেই তা হবে বলে জানাচ্ছেন বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিমন্ত্রী স্থপতি ইয়াফেস ওসমান। যদিও পুরো প্রক্রিয়া নিয়েও আছে অনেকটা সংশয়। রূপপুর বিদ্যুৎ কেন্দ্রের নির্মাতা রাষ্ট্র রাশিয়াতেই সব অবকাঠামো প্রস্তুত থাকার পরও ১২শ মেগাওয়াটের কেন্দ্র তৈরি করতে সময় লেগেছে ৮ বছর। রাশিয়ার দক্ষিণে ইউক্রেন সীমান্তবর্তী শহর রসতোভ। সেখানেই দেশটির সবচেয়ে বড় পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র। উৎপাদনে থাকা তিনটি ইউনিট থেকে আসছে তিনহাজার ৬শ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ যা সরাসরি চলে যাচ্ছে রুশদের জাতীয় গ্রিড লাইনে। ১৫ ডিসেম্বর ঢাকায় এসেছিলেন দায়িত্বপ্রাপ্ত সংস্থা রোসাটমের মহাপরিচালক। সে সময় রূপপুর পারমাণবিক কেন্দ্র নির্মাণে চুড়ান্ত চুক্তিতে অনুসাক্ষর করে দু’দেশ। এসময় সংস্থাটির মহাপরিচালক প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাথে সাক্ষাত করতে গেলে নির্ধারিত সময়ে প্রথম ইউনিটটি উৎপাদনে আনার নির্দেশনাও দেন তিনি। পারমানবিক বিদ্যুত কেন্দ্র নিয়ে এক ধরণের অস্বস্তি থেকেই, পরিবেশ ও জনস্বাস্থ্যের বিষয়টা সবচেয়ে গুরুত্ব দিয়ে দেখা হচ্ছে বলে দাবি সরকারের। এ জন্য পারমাণবিক বর্জ্য রাশিয়ার ফেরত নেয়ার বিষয়টিও চূড়ান্ত হয়েছে বলে জানান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিমন্ত্রী ইয়াফেস ওসমান। বহুল আলোচিত রূপপুর পারমাণবিক প্রকল্প বাস্তবায়িত হলে জাতীয় গ্রিডে যুক্ত হবে ২ হাজার ৪শ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ। 

Comments

comments