ব্রেকিং নিউজ

কথাসাহিত্যিক হাসান আজিজুল হককে হত্যার হুমকি

হাচান আজিজুল হক-দ্য বিডি এক্সপ্রেস.কম

রাজশাহী প্রতিনিধি:
রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. এ কে এম শফিউল ইসলামকে হত্যার একবছর পেরুতে না পেরুতেই আবারো বিশ্ববিদ্যালয়ের এক অধ্যাপককে হত্যার হুমকির দেওয়া হয়েছে। রোববার উপমহাদেশের প্রখ্যাত কথাসাহিত্যিক ও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের অবসর প্রাপ্ত শিক্ষক অধ্যাপক হাসান আজিজুল হককে মোবাইলফোনে হুমকি দেওয়া হয়েছে।

রোববার বিকেল সাড়ে চারটার দিকে হাসান আজিজুল হকের ব্যক্তিগত মোবাইলফোনে ঁহশহড়হি এক নম্বর থেকে ফোন করা হয়। এ সময় আজিজুল হক ফোন রিসিভ করলে ফোনের অপর প্রান্ত থেকে তাকে বলা হয় যে তিনি নিজেকে চেঞ্জ (পরিবর্তন) করতে পারবেন কি না। জবাবে আজিজুল হক বলেন, ‘আমি কেন এই বয়সে নিজেকে পরিবর্তন করবো?’ তখন ফোনের অপর প্রান্ত থেকে বলা হয়, ‘যদি চেঞ্জ হতে না পারেন তাহলে প্রস্তুত থাকেন। আমরা আসছি।’ জবাবে হাসান আজিজুল হক বলেন, ‘আসেন, যা বলার সামনে এসে বলেন।’ তখন অপরপ্রান্ত থেকে বলা হয়, ‘ঠিক আছে, আমরা আসছি।”

হাসান আজিজুল হকের পুত্রবধূ সুলতানা রাজিয়া বলেন, হাসান আজিজুল হক সাধারণত বিকেলে বিশ্রাম নেন। রোববার বিশ্রামকালে এ হুমকি দেওয়ার ঘটনা ঘটে। তবে হুমকিদাতার কোনো নম্বর মোবাইল ফোনের পর্দায় ওঠেনি। নম্বরের পরিবর্তে সেখানে ঁহশহড়হি লেখা ওঠে।

এ হুমকির ঘটনায় থানায় কোনো জিডি করা হয়নি জানিয়ে রাজশাহী মহানগরীর মতিহার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হুমায়ুন কবির বলেন,‘ হুমকির বিষয়টি জেনেছি। স্যারের (হাসান আজিজুল হক) সাথে কথা বলে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
 
এদিকে এ ঘটনায় তীব্র নিন্দা জানিয়ে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির সভাপতি প্রফেসর ড. আনন্দ কুমার সাহা বলেন, হাসান আজিজুল হকের মতো ব্যক্তিকে হত্যার হুমকি দেওয়ার ঘটনা দুঃখজনক। সন্ত্রাসী বা জঙ্গি গ্রুপ দেশে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি তৈরি করতে খ্যাতনামা ব্যক্তির ওপর হামলা করার চেষ্টা করছে। এরই অংশ হিসেবে হয়তো আজিজুল হককে হুমকি দেওয়া হয়েছে। এ বিষয়ে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে সরকারের কাছে দাবি জানাচ্ছি। একই সাথে এ ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করছি।

এরআগে আজিজুল হকের বাসায় কাফনের কাপড় পাঠিয়ে হুমকি দেওয়া হয়েছিল উল্লেখ করে তিনি বলেন, একের পর এক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষককে হুমকি দেওয়া হচ্ছে, এটি আমরা বারবার বলে আসছি। শিক্ষকদের হুমকি দেওয়ার ঘটনা সরকার ও পুলিশ প্রশাসনকে গুরুত্বের সঙ্গে দেখতে হবে। এর পেছনে কারা জড়িত সেটা খুঁজে বের করতে হবে।

প্রসঙ্গত, প্রখ্যাত এই কথাসাহিত্যিক হাসান আজিজুল হক ১৯৩৯ সালের ২ ফেব্রুয়ারি পশ্চিমবঙ্গের বর্ধমানের যবগ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৭৩ থেকে ২০০৪ সাল পর্যন্ত তিনি রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের দর্শন বিভাগে অধ্যাপনা করেছেন। ১৯৯৯ সালে তিনি ‘একুশে পদক’ পান। বর্তমানে তিনি বিশ্ববিদ্যালয় সংলগ্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের আবাসিক এলাকা বিহাসে থাকেন।
 

Comments

comments