ব্রেকিং নিউজ

নরসিংদিতে বহিরাগতদের হামলায় বিএনপির সম্মেলন পন্ড

বিএনপির সম্মেলন-দ্য বিডি এক্সপ্রেস

প্রতিবেদক।।

নরসিংদী জেলার রায়পুর উপজেলা বিএনপির পূর্বনির্ধারিত সম্মেলনে বহিরাগতদের হামলায়, ভাঙচুর, অগ্নিসংযোগ ফলে  বানচাল হয়ে যায়। হামলাকারীরা অতিথীদের জন্য তৈরী করা খাবার লুট করে নিয়ে যায়। 

শুক্রবার বিকেলে নরসিংদী প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনে উপজেলা বিএনপি নেতারা অভিযোগ করে বলেন ছাত্রলীগ ও যুবলীগের নেতা কর্মীরা হামলা,অগ্নিসংযোদ ভাংচুর চলালে সম্মেলন পন্ড হয়ে যায়। বিএনপি নেতারা অভিযোগ করে বলেন পুলিশের ছত্রছায়ায় এই হামলা চালানো হয়। 
উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট নেছার উদ্দিন আহমেদ সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে বলেন, ‘আজ সকালে রায়পুরা উপজেলার দৌলতকান্দি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে উপজেলা বিএনপির দ্বিবার্ষিক সম্মেলন হওয়ার কথা ছিল। এ উপলক্ষে স্কুলমাঠে বিশাল মঞ্চ তৈরি করা হয়েছিল। কাউন্সিলর ও অতিথিদের খাবারের জন্য দুটি গরু জবাই করে রান্নাবান্নার ব্যবস্থা করা হয়েছিল। এরই মধ্যে বৃহস্পতিবার রাত ১১টার দিকে ছাত্রলীগ, যুবলীগ ও আওয়ামী লীগের নেতাকর্মী ও সমর্থকরা মিছিল নিয়ে এসে পুলিশের উপস্থিতিতে আমাদের প্যান্ডেলে আগুন লাগিয়ে দেয়। ভেঙে চুরমার করা হয় মঞ্চ ও সভাস্থলের চেয়ার-টেবিল। লুট করে নিয়ে গেছে অতিথিদের আপ্যায়নের জন্য গরুর মাংসসহ বিভিন্ন খাবারসামগ্রী।

 

উপজেলা বিএনপির সদস্য সচিব আবদুর রহমান খোকন বলেন, ‘অতিথিদের আপ্যায়নের জন্য সম্মেলনস্থলে রান্নার ব্যবস্থা করা হয়েছিল। মঞ্চ ভাঙচুরের পর সেখান থেকে পুলিশভ্যানে অতিথিদের জন্য আনা গরুর মাংসসহ বিভিন্ন খাবার লুট করা হয়েছে। তা ছাড়া বিএনপি নেতা-কর্মীদের সম্মেলনস্থলে যেতে মোবাইলে ফোন করে নিষেধ করেছেন খোদ রায়পুরা থানার পুলিশ।
এদিকে বিএনপি নেতাকর্মীদের অভিযোগ অস্বীকার করেছেন রায়পুরা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আজহারুল ইসলাম সরকার। তিনি বলেন, মূলত বিএনপির অন্তঃকোন্দলের কারণেই উপজেলা বিএনপির সম্মেলন পণ্ড হয়ে গেছে। প্রায় প্রতিটি সম্মেলনের বেলায় একপক্ষের সম্মতি থাকলে অপর পক্ষ বাধা দিয়েছে।

বিএনপির সংবাদ সম্মেলনে জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক তোফাজ্জল হোসেন মাস্টার, সিনিয়র সহ-সভাপতি সুলতান উদ্দিন মোল্লা, কেন্দ্রীয় যুবদল নেতা ফজলুর রহমান, বিএনপি নেতা কাজী আশরাফুল আজীজ, আলী রেজাউর রহমান রিপন সহ বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

Comments

comments