ব্রেকিং নিউজ

এবার বেতন দ্বিগুণ হচ্ছে রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রীর! চাপের মুখে রাষ্ট্রীয় কোষাগার

টাকা

প্রতিবেদক।।

রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, স্পিকার, ডেপুটি স্পিকার, মন্ত্রিসভার সদস্য, সংসদ সদস্য ও বিচারপতিদের বেতন কাঠামো পুনর্নির্ধারণ করে রেম্যুনারেশন অ্যান্ড প্রিভিলেজ সংশোধন আইন ২০১৫-এর চূড়ান্ত অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা।

কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতন বৃদ্ধি পেয়েছে আগেই। এবার রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, মন্ত্রিসভার সদস্য, বিচারপতি ও সংসদ সদস্যদের বেতন বাড়িয়ে প্রায় দ্বিগুণ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। এর আগে ২০০৯ সালে রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, মন্ত্রী, প্রতিমন্ত্রী ও উপমন্ত্রীদের বেতন বাড়ানো হয়েছিল। একের পর এক বেতন বৃদ্ধির ফলে চাপের মধ্যে পড়েছে রাষ্ট্রীয় কোষাগার। আগামী বাজেটে ৪২ হাজার কোটি টাকা যোগান দিতে হবে সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতন-ভাতা খাতে। চলতি বাজেট থেকে এ খাতে বরাদ্দ বেশি থাকছে ১৩ হাজার কোটি টাকা। অর্থমন্ত্রীর ঘোষণা অনুযায়ী ১ জুলাই থেকে সরকারি চাকরিজীবীদের নতুন বেতন স্কেল বাস্তবায়ন হচ্ছে। যে কারণে আসন্ন বাজেটে বেতন-ভাতা খাতে বরাদ্দের পরিমাণ প্রায় ৪৫ শতাংশ বাড়ানো হচ্ছে।
নতুন সিদ্ধান্ত অনুযায়ী রাষ্ট্রপতির বেতন ৬১ হাজার ২০০ টাকা থেকে বেড়ে হবে ১ লাখ ২০ হাজার টাকা। আর প্রধানমন্ত্রী ৫৮ হাজার ৬০০ টাকার বদলে ১ লাখ ১৫ হাজার টাকা বেতন পাবেন।
জাতীয় সংসদের স্পিকারের বেতন মাসে ৫৭ হাজার ২০০ টাকা থেকে বেড়ে ১ লাখ ১২ হাজার টাকা হচ্ছে। আর বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতির বেতন ৫৬ হাজার টাকা থেকে বেড়ে ১ লাখ ১০ হাজার টাকা হচ্ছে।
সোমবার সচিবালয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠকে তাদের বেতন বৃদ্ধির জন্য সংশ্লিষ্ট আইন সংশোধনের প্রস্তাবে চূড়ান্ত অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।
বৈঠকের পর মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ মোশাররাফ হোসাইন ভূইঞা সাংবাদিকদের বলেন, নতুন বেতন কাঠামো অনুযাযী সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের যে হারে বেতন বাড়ানো হয়েছে, তার সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখেই এই বেতন বৃদ্ধি হল। বেতনের সঙ্গে সঙ্গে তাদের ভাতাও বাড়ছে।
রাষ্ট্রপতির সুপারিশ নিয়ে এখন এসব খসড়া পাসের জন্য সংসদে তোলা হবে। নতুন হারে বেতন কার্যকর হবে চলতি বছরের ১ জুলাই থেকে। আর ভাতা ২০১৬ সালের ১ জুলাই থেকে কার্যকর করা হবে।
নতুন হারে সরকারের মন্ত্রী, ডেপুটি স্পিকার, বিরোধী দলীয় নেতা, চিফ হুইপ এবং আপিল বিভাগের বিচারকদের বেতন ৫৩ হাজার ১০০ টাকা থেকে বেড়ে ১ লাখ ৫ হাজার টাকা হচ্ছে। আর হাই কোর্ট বিভাগের বিচারকদের বেতন ৪৯ হাজার থেকে বেড়ে হচ্ছে ৯৫ হাজার টাকা।
এছাড়া প্রতিমন্ত্রী, বিরোধী দলীয় উপ নেতা ও হুইপের বেতন ৪৭ হাজার ৮০০ থেকে বেড়ে ৯২ হাজার টাকা এবং উপমন্ত্রীর বেতন ৪৫ হাজার ১৫০ থেকে বেড়ে ৮৬ হাজার ৫০০ টাকা হচ্ছে।
নতুন সিদ্ধান্ত কার্যকর হলে জাতীয় সংসদের সদস্যরা প্রতি মাসে বেতন হিসেবে পাবেন ৫৫ হাজার টাকা, যা এতোদিন ২৭ হাজার ৫০০ টাকা ছিল।

 

Comments

comments