ব্রেকিং নিউজ

জৈন ধর্মের অনুসারিদের না খেয়ে মৃত্যুবরণ বৈধঃ সুপ্রিমকোর্ট

জৈন ধর্মআন্তর্জাতিক ডেক্সঃ

ভারতে জৈন ধর্মের অনুসারিদের মধ্যে অনশনের মধ্যে দিয়ে মৃত্যুকে বেছে নেওয়ার যে রীতি বা 'সান্তারা' প্রচলিত আছে, দেশের সুপ্রিম কোর্ট তার ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা তুলে নিয়েছে।

সব ধরনের খাওয়াদাওয়া বন্ধ করে দিয়ে স্বেচ্ছায় ধীরে ধীরে মৃত্যুর পথ বেছে নেওয়ার নামই সান্তারা – ভারতের জৈন সমাজের মধ্যে যে রীতি আজও প্রচলিত।

এর আগে রাজস্থান হাইকোর্ট তাদের এক রায়ে বলেছিল সান্তারা আত্মহত্যারই সামিল – কাজেই তা বেআইনি।

সারা দেশ জুড়ে জৈনরা এই রায়ের বিরুদ্ধে গত বেশ কিছুদিন ধরে বিক্ষোভ দেখিয়ে আসছিলেন – আজ শীর্ষ আদালতের রায়ে তারা স্বস্তি পেয়েছেন।

কিন্তু এ মাসেই রাজস্থান হাইকোর্ট একটি মামলার সূত্র ধরে রায় দিয়েছিল, এই ধরনের আমৃত্যু অনশনের মধ্যে কোনও মর্যাদা নেই – এবং ভারতীয় সংবিধানের ২১ ধারা অনুযায়ী যে জীবনের অধিকার দেওয়া হয়েছে, সান্তারা তারও পরিপন্থী।

কিন্তু গত দু-তিনসপ্তাহ ধরেই এই রায়ের বিরুদ্ধে সারা দেশের জৈন সমাজ রাস্তায় নেমে প্রবল বিক্ষোভ দেখাচ্ছেন। জয়পুর থেকে ইন্দোর, আওরঙ্গাবাদ থেকে সেকেন্দ্রাবাদ – যেখানেই জৈনরা বেশি সংখ্যায় আছেন, সেখানেই দেখা গেছে তীব্র আন্দোলন।

অবশেষে আজ সুপ্রিম কোর্টে প্রধান বিচারপতি এইচ এল দাত্তু আর অমিতাভ রায়ের বেঞ্চ রাজস্থান হাইকোর্টের রায়ের ওপর স্থগিতাদেশ দিয়েছেন – যার অর্থ সান্তারার ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা আপাতত উঠে গেল।

সারা ভারত দিগম্বর জৈন মহাসভার প্রেসিডেন্ট নির্মল কুমার শেঠি সুপ্রিম কোর্টকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন এই রায় শুধু জৈন সমাজের নয় – ভারতীয় সংস্কৃতিরই জয়।সুত্রঃ বিবিসি

Comments

comments