ব্রেকিং নিউজ

১৯৭২-৭৫ এর অস্থিতিশীলতার জন্য জাসদ দায়ীঃ বিএনপি

al-BNP20130904203229প্রতিবেদকঃ স্বাধীনতা পরবর্তী ১৯৭২-৭৫ সময়ে কর্নেল তাহের ও ইনু’রা স্বশস্ত্র বিপ্লবের মাধ্যমে আওয়ামী লীগকে হটিয়ে ক্ষমতা দখল করতে চেয়েছিল।

সোমবার দুপুরে  নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে দলের মুখপাত্র আসাদুজ্জামান রিপন  বলেন, দেশে যে অস্থিতিশীলতা সৃষ্টি হয়েছিল এর জন্য দায়ী ছিল জাসদ। এর অন্যতম নেতা হলেন হাসানুল হক ইনু। ওই সময়ে যা হয়েছিল তা দেশের মানুষের কাছে স্পষ্ট করতে হবে।” একই সঙ্গে এর দায়ভার নিয়ে তথ্যমন্ত্রীকে পদত্যাগের দাবি জানান তিনি।

আসাদুজ্জামান রিপন জাসদ গণবাহিনী ও তার নেতা ইনুকে ‘গণতন্ত্রের শত্রু’ আখ্যায়িত করে বলেন, ‘যাদের রাজনীতি শুরু হয়েছে সন্ত্রাস ও হত্যাকাণ্ডের মধ্যদিয়ে তাদের কাছ থেকে যদি গণতন্ত্র শিখতে হয়, তার চেয়ে দুর্ভাগ্য জাতির জন্য আর কিছু নেই। তাদের মুখে গণতন্ত্রের ছবক জাতি শুনতে চায় না।’

তিনি বলেন, ‘আওয়ামী লীগ ও শেখ হাসিনা তার মন্ত্রিসভায় এমন সব লোককে নিয়োগ দিয়েছেন যারা তার পিতা শেখ মুজিবের চামড়া দিয়ে ডুগডুগি বাজাতে চেয়েছিল। এটা শেখ হাসিনার জন্য দুর্ভাগ্য। এই ইনুরাই শেখ মুজিবের সরকারকে উৎখাত করতে সশস্ত্র সংগ্রাম করেছে। এদেশে সন্ত্রাসের রাজনীতি শুরু করেছে। আজ তারা গণতন্ত্রের কথা বলে। এটা জাতির জন্য উপহাস।’
তিনি বলেন, যারা গণতন্ত্রের রাজনীতি চর্চা করেননি তাদের কাছ থেকে যদি গণতন্ত্রের শিক্ষা নিতে হয় এর চেয়ে দুর্ভাগ্যের আর কিছুই নেই।

 

এদিকে, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল নোমান অভিযোগ করেছেন, ‘স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে কর্নেল তাহের ও ইনু’রা স্বশস্ত্র বিপ্লবের মাধ্যমে আওয়ামী লীগকে হটিয়ে ক্ষমতা দখল করতে চেয়েছিল। আজ তারাই বড় আওয়ামী লীগার। শেখ হাসিনা একটি কথা বললে ইনু আগ বাড়িয়ে আরো বেশি বলেন।’

আজ (সোমবার) দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাবের ভিআইপি লাউঞ্জে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। মহান মুক্তিযুদ্ধে জিয়াউর রহমানের অবদান তুলে ধরে নোমান বলেন, ‘তিনি নেতা নাকি পাঠক হিসেবে স্বাধীনতার ঘোষণা দিয়েছেন আমি সেই বিতর্কে যেতে চাই না। তবে জাতির সেই ক্রান্তিলগ্নে তিনি যদি স্বাধীনতার ঘোষণা না দিতেন তাহলে মুক্তিযুদ্ধ ব্যর্থতায় পর্যবসিত হতো কি না তা নিয়ে সন্দেহ আছে।’

তিনি অভিযোগ করেন,  আইনের শাসনের অনুপস্থিতিতে দেশব্যাপী অরাজকতা সৃষ্টি হয়েছে। এই পরিস্থিতি থেকে উত্তরণে ‘জনগণের জন্য জনগণের দ্বারা’ একটি অবাধ সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের কোনো বিকল্প নেই ।

নোমান আরো  বলেন, ‘জনগণই সব ক্ষমতার উৎস হলেও এখন সব ক্ষমতা র‍্যাব আর পুলিশের হাতে। আর আওয়ামী লীগ তাদের সহযোগী হিসেবে কাজ করছে। সমগ্র জাতি এই সরকারকে ঘৃণা করে। কিন্তু গুম -হত্যার ভয়ে কেউ মুখে কিছু বলছে না।’  

 

Comments

comments