ব্রেকিং নিউজ

অটোরিক্সা চালকদের হাতে রাবি শিক্ষার্থী লাঞ্ছিত, প্রতিবাদে মহাসড়ক অবরোধ

রাবি শিক্ষাথীরাজশাহী প্রতিনিধি: রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের তিন শিক্ষার্থীকে অটোচালকদের মারধরের ঘটনায় সুষ্ঠ বিচার দাবি করে মানববন্ধন ও মহাসড়ক অবরোধ করেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা। শনিবার দুপুর ১২টায় তারা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকের সামনে ঢাকা-রাজশাহী মহাসড়ক অবরোধ করে রাখে। প্রায় আধা ঘন্টা পরে বিশ্ববিদ্যালয় প্রক্টর অধ্যাপক তারিকুল হাসানের আশ্বাসে শিক্ষার্থীরা সড়ক অবরোধ ছেড়ে দেয়।

আহত তিন শিক্ষার্থী হলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের গণিত বিভাগের মাস্টার্সের শিক্ষার্থী মো ইয়াকুব আলী, মো লিটন হোসেন ও চঞ্চল কুমার সূত্রধর। এদের মধ্যে চঞ্চল গুরুতর আহত হয়ে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

শিক্ষার্থীরা জানান, শুক্রবার রাত সোয়া ১১টার দিকে রাজশাহীর রেল স্টেশন থেকে বিনোপুর বাজারের উদ্দেশ্যে একটি অটোরিকশায় আসছিল বিশ্ববিদ্যালয়ের গণিত বিভাগের শিক্ষার্থী চঞ্চল কুমার, ইয়াকুব আলী ও লিটন। অটোরিকশাটি তালাইমারী মোড়ে আসলে অটোচালক আর সামনে আসবে না বলে জানায়। কিন্তু শিক্ষার্থীরা তাকে বিনোদপুরে আসতে বলে। এনিয়ে তাদের মধ্যে বাকবিত-ার সৃষ্টি হলে একপর্যায়ে ওই অটো-চালকসহ সেখানকার ১০/১২ জন অটোচালক মিলে ওই তিন শিক্ষার্থীকে রড দিয়ে বেধরক মারধর করে। এসময় ইয়াকুব আলীর মাথা ফেটে যায়। তাদেরকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। চঞ্চল কুমারকে এখনো গুরুতর অবস্থায় রামেকে রাখা হয়েছে।

শিক্ষার্থীরা আরো জানান, প্রায়ই বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা বাস চালক, অটো চালকদের মারধরের শিকার হচ্ছে। কিন্তু বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন এ বিষয়ে যথাযথ পদক্ষেপ না নেয়ার কারণে চালকরা শিক্ষার্থীদের ওপর হামলা করতে কোন দ্বিধা করছে না। তারা যেন এই সাহস আর না করতে পারে এজন্য শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনের যথাযথ পদক্ষেপ দাবি করে। এসময় তারা ঘটনায় জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করেন।

এর আগে সকাল সাড়ে ১১টার দিকে তারা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসন ভবনের সামনে একই দাবিতে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক তারিকুল হাসান বলেন, ‘মারধরের ঘটনায় সুষ্ঠ বিচার দাবি করে শিক্ষার্থীরা সড়ক অবরোধ করেছিল। আমি আশ্বাস দিলে তারা সড়ক অবরোধ ছেড়ে দেয়।’ তিনি আরো জানান, ‘এ ঘটনায় হামলাকারীদের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। আর এ ধরনের ঘটনার যেন পুনরাবৃত্তি না ঘটে সে জন্য যথাযথ পদক্ষেপ নেয়া হবে।’

প্রসঙ্গত, শুক্রবার রাত সোয়া ১১টার দিকে রাজশাহী শহরের তালাইমারী মোড়ে গন্তব্যস্থলে যাওয়া নিয়ে কথাকাটাকাটির জেরে অটোচালকরা বিশ্ববিদ্যালয়ের গনিত বিভাগের তিন শিক্ষার্থীকে মারধর করে আহত করে। পরে তাদেরকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসাপাতালে ভর্তি করা হয়।

Comments

comments