ব্রেকিং নিউজ

বেসরকারী শিক্ষক-কর্মচারিদের নতুন বেতন স্কেলের অন্তর্ভক্তির দাবি – বাকবিশিস

প্রেস বিজ্ঞপ্তিঃ ৮ম বেতন কমিশন কার্যকর হওয়ার তারিখ থেকেই বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-কর্মচারিদের অন্তর্ভূক্তির দাবি জানিয়েছেন বাংলাদেশ কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি বাকবিশিস। বাকবিশিসের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি ড.নুর মোহাম্মদ তালুকদার  ও সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছেন যে, ১৯৯৭, ২০০৫ ও ২০০৯ সালে  যথাক্রমে ৫ম, ৬ষ্ঠ, ও ৭ম বেতন কমিশন কার্যকর হওয়ার তারিখ থেকে সরকারি কর্মকর্তা কর্মচারিদের সাথেই বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক কর্মচারিরা বেতন কমিশনের অন্তর্ভূক্ত হয়েছিলেন, এমনকি ২০১২ সালে সরকারি প্রদত্ত ২০ ভাগ মহার্ঘ ভাতা ও সরকারী কর্মকর্তা-কর্মচারিদের সাথেই পেয়েছিলেন যা এখনও অব্যহত আছে। অথচ ৮ম বেতন কমিশন ও সচিব কমিটি কেন বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-কর্মচারিদের অন্যান্যদের তুলনায় ৬ মাস পরে বেতন কমিশনে অন্তর্ভূক্তির সুপারিশ করলেন তা বোধগম্য নয়। জাতি গড়ার কারিগর শিক্ষক সমাজকে আর্থিকভাবে বঞ্চিত করে মান সম্মত শিক্ষা বাস্তবায়ন সম্ভব নয়। নেতৃবৃন্দ ৮ম বেতন কমিশন কার্যকর হওয়ার তারিখ থেকেই বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-কর্মচারিদের অন্তর্ভূক্তির দাবিতে মাননীয় প্রধান মন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন। নেতৃবৃন্দ বলেন বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক কর্মচারিরা মাত্র ৫০০ টাকা বাড়ী ভাড়া, ৩০০ টাকা চিকিৎসা  ভাতা এবং চাকুরি জীবনে ১টি মাত্র ইনক্রিমেন্ট পান তাও ১৯৯১ সালের ৪র্থ বেতন স্কেলের আলোকে। এখনই দ্রব্যমূল্যের উর্ধগতির ফলে তাদের বেতন দিয়ে চলতে খুবই কষ্ট হচ্ছে। এমনতর অবস্থায় তাঁরা ৮ম বেতন কমিশন কার্যকর হওয়ার দিন থেকেই বেসরকারি শিক্ষক কর্মচারিদের স্কেলের অন্তর্ভূক্তির দাবি জানিয়েছেন।   

Comments

comments