ব্রেকিং নিউজ

রাজন হত্যা: এসআই প্রত্যাহার, চৌকিদার গ্রেফতার

রাজন ৩প্রতিবেদকঃ শিশু সামিউল আলম রাজনকে পিটিয়ে হত্যা মামলার জালালাবাদ থানার এসআই আমিনুল ইসলামকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। হত্যাকান্ডের অন্যতম আসামি চৌকিদার ময়না মিয়াকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।
 জানাযায়, ময়না তার গ্রামের বাড়ি কুমারগাঁও সংলগ্ন পীরপুরে একটি বাড়িতে আত্মগোপনে ছিল। মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে গ্রামের লোকজন তাকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেন। এ সময় উত্তেজিত জনতা ময়নার ওপর আক্রমণের চেষ্টা চালায়। জনতার রুদ্ররোষ থেকে পুলিশ অতি সুকৌশলে ময়নাকে জালালাবাদ থানায় নিয়ে যায়। সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের এডিসি রহমত উল্যাহ জানান, মঙ্গলবার রাত ১০টার দিকে  টুকেরবাজার এলাকা থেকে গ্রেফতার করে জালালাবাদ থানা পুলিশ।

এদিকে জালালাবাদ থানার এসআই আমিনুল ইসলামকে প্রত্যাহার করা হয়েছে। রাজন হত্যাকান্ডকে দামাচাপা দেওয়া মামলার অন্যতম আসামি কামরুলকে পালিযে যেতে সহযোগিতা করার অপরাধে তাকে প্রত্যাহার করা হয়।
রাজনের বাবা শেখ আজিজুর রহমান ঘটনার দিন রাতে মামলা করতে জালালাবাদ থানায় যান। এসময় পুলিশ কর্মকর্তা তাকে গলাধাক্কা দিয়ে থানা থেকে বের করে দেন। বের করার পরও প্রকৃত নির্যাতনকারী ঘাতকদের বিরুদ্ধে মামলা রুজু করার জন্য  এসআই আমিনুল ইসলামকে অনুরোধ করেন তারা। কিন্তু মামলা নিতে নানা তালবাহানা শুরু করেন পুলিশের ওই কর্মকর্তা। স্বজনদের অভিযোগের প্রেক্ষিতে আমিনুলে প্রত্যাহার করা হলো। অভিযোগ তদন্তে ৩ সদস্য বিশিষ্ট একটি কমিটি গঠন করেন সিলেট মহানগর পুলিশ কমিশনার কামরুল আহসান।

 

 

Comments

comments