ব্রেকিং নিউজ

শিকগিরই মন্ত্রিসভায় ব্যাপক পরিবর্তন আসছে

মন্ত্রী সভার পরিবর্তনপ্রতিবেদকঃ যে কোন সময়ে মন্ত্রিসভায় ব্যাপক পরিবর্তন হতে পারে বলে বিশ্বস্হ সুত্রে জানা গেছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শিকগিরই দফতর পরিবর্তন ছাড়াও মন্ত্রিসভায় নতুন মুখের অন্তর্ভুক্তি আনবেন। গত দেড় বছরের পারফরম্যান্স বিবেচনায় কারও কারও কপালও পুড়তে পারে। বাদ পড়ার আশংকা রয়েছে কয়েকজন মন্ত্রী ও প্রতিমন্ত্রীর। বিগত দেড় বছরে যেসব মন্ত্রী ও প্রতিমন্ত্রীর কারণে সরকার এবং দলকে বেকায়দায় পড়তে হয়েছে, লাগামহীন কথাবার্তায় বিব্রত অবস্থায় পড়তে হয়েছে বারবার এবং দক্ষতা ও যোগ্যতা বিবেচনায় যারা সফলতা দেখাতে পারেননি, তাদেরও কপাল পুড়তে পারে এবার। ইতিমধ্যে প্রধানমন্ত্রী তার প্রেস সচিব শামীম চৌধুরীকে বাদ দিয়ে নতুন প্রেস সচিব হিসেবে রাষ্ট্রপতির সাবেক প্রেস সচিব এহসানুল করিম হেলালকে নিয়োগ দিয়েছেন। খুঁড়িয়ে চলা প্রেস উইংকে আরও গতিশীল করতে নেয়া হতে পারে কার্যকর উদ্যোগ। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার পার্সোনাল উইংয়েও পরিবর্তন আনার ব্যাপারে চিন্তাভাবনা করছেন। গণভবন ও প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় এ তথ্য জানিয়েছে।

প্রধানমন্ত্রীর ঘনিষ্ঠরা জানিয়েছেন, টানা দ্বিতীয় মেয়াদে দেড় বছর বয়সী আওয়ামী লীগ সরকারের মন্ত্রিসভায় পরিবর্তনের জন্য একাধিকবার উদ্যোগ নেয়া হয়। বিশেষ করে এক বছরপূর্তিতে এ উদ্যোগ ছিল সক্রিয় বিবেচনাধীন। কিন্তু বিএনপি-জামায়াত জোটের টানা তিন মাসের অবরোধে জ্বালাও-পোড়াও এবং মানুষ হত্যায় সে উদ্যোগ থেমে যায়।

তবে হজ, ধর্ম ও সজীব ওয়াজেদ জয়কে নিয়ে বেফাঁস মন্তব্য করে মন্ত্রিত্ব হারিয়ে জেলহাজতে আছেন বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী আবদুল লতিফ সিদ্দিকী।

দুর্নীতির একটি মামলায় সাজা থাকায় ত্রাণমন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়ার মন্ত্রিত্ব নিয়ে সাংবিধানিক জটিলতা তৈরি হয়েছে। ১৪ জুন সুপ্রিমকোর্টের আপিল বিভাগ তাকে খালাস দিয়ে হাইকোর্টের রায় বাতিল করে দিয়েছেন। ফলে ঢাকার বিশেষ আদালতের দেয়া ১৩ বছরের সাজা বহাল রয়েছে। এ সাজা বহাল থাকায় সংবিধানের ৬৬ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়ার মন্ত্রিত্ব ও সংসদ সদস্য পদ খারিজ হয়ে গেছে বলে আইন বিশেষজ্ঞরা মতামত দিয়েছেন।

তাছাড়া গম কেলেংকারিতে বেকায়দায় পড়েছেন খাদ্যমন্ত্রী অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম। শুধু ব্রাজিল নয়, ফ্রান্স থেকে কেনা গমও পচা বলে জানা গেছে। এসব গম ক্রয়ে কোটি কোটি টাকার দুর্নীতি হয়েছে বলে ধারণা করছেন সংশ্লিষ্টরা।

 
 

অবরোধের মধ্যেই তিন সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন ঘোষণা দেয়া হলে ধীরে ধীরে নাশকতা কমে আসে। ঢাকার দুই সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচন শেষ হয়েছে। সেই সঙ্গে সমাপ্তি হয়েছে দীর্ঘ সময় ধরে চলে আসা বিএনপি-জামায়াতের নাশকতাও। ভারতের পার্লামেন্টে সীমান্ত চুক্তি বিলও অনুমোদন হয়েছে। এর মধ্যে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও পশ্চিম বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি ঢাকা সফর করে গেছেন। 

 

সমুদ্রেও বাংলাদেশের অধিকার প্রতিষ্ঠা হয়েছে। এসব কিছু মিলে শেখ হাসিনা বেশ উৎফুল্ল। এ অবস্থায় তিনি লন্ডন সফর করে এসেছেন। সেখানে তাকে বিপুল সংবর্ধনা প্রদান করা হয়। প্রধানমন্ত্রী লন্ডন থেকে ফিরে এক পারিবারিক আলোচনায় মন্ত্রিসভা সম্প্রসারণের ব্যাপারে ইঙ্গিত দিয়েছেন বলেও ঘনিষ্ঠ সূত্রে জানা গেছে। সূত্র জানিয়েছে, দলের একজন প্রভাবশালী নেতাকে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বে দেয়ার চিন্তা-ভাবনা রয়েছে। বর্তমানে এ মন্ত্রণালয়ে রয়েছেন একজন প্রতিমন্ত্রী। এর বাইরে ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়েও একজন মন্ত্রী নিয়োগ করা হবে। বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী আবদুল লতিফ সিদ্দিকীকে অপসারণের পর পদটি এখন পর্যন্ত শূন্য রয়েছে। এর বাইরে প্রতিমন্ত্রী পদে দলের একাধিক নেতার অন্তর্ভুক্তির বিষয়ে জোরালো সম্ভাবনা রয়েছে। তবে প্রথম মেয়াদে মহাজোট সরকারের কোনো মন্ত্রী-প্রতিমন্ত্রীর (সাবেক) নতুন করে আশাবাদী হওয়ার সুযোগ এখনও তৈরি হয়নি বলেও কেউ কেউ দাবি করেছেন।

 
 
 

Comments

comments