ব্রেকিং নিউজ

রোহিঙ্গা সঙ্কট নিয়ে বাংলাদেশের উদ্বেগ প্রকাশ

পররাষ্ট মন্ত্রীদ্য বিডি এক্সপ্রেসঃ মিয়ানমারে উগ্র রাখাইন বৌদ্ধদের পরিকল্পিত নিপীড়ন ও বিতাড়নের শিকার সংখ্যালঘু রোহিঙ্গারা বিভিন্ন উগ্রপন্থি জঙ্গি কর্মকাণ্ডে জড়িয়ে পড়ার আশংকা প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ। কুয়েতে ওআইসির মন্ত্রী পর্যায়ের ৪২তম বৈঠকে এশিয়ার দেশগুলোর পক্ষ থেকে বুধবার পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী বাংলাদেশের এই শঙ্কার কথা তুলে ধরেন। তিনি বলেন, ইতোমধ্যে তারা বড় ধরনের ঝুঁকিতে পড়েছে। উগ্রপন্থিদের সঙ্গে জড়িয়ে গেলে এ অঞ্চলে সক্রিয় সন্ত্রাসীদের বিভিন্ন সংগঠনে তাদের যুক্ত হওয়ার আশঙ্কা বাড়ছে। মিয়ানমার সরকার রোহিঙ্গাদের জোর করে বাঙালি হিসাবে নিবন্ধিত করা নিয়েও তিনি উদ্বেগ প্রকাশ করেন।

দেশে নির্যাতনের মুখে থাকা রোহিঙ্গারা গত কয়েকবছর ধরেই প্রতিবেশী বাংলাদেশসহ বিভিন্ন দেশে পাড়ি জমানোর চেষ্টা করছে। কক্সবাজারের কুতুপালং ও নয়াপাড়ায় বর্তমানে রোহিঙ্গাদের দুটি শরণার্থী শিবিরে নিবন্ধিত ৩৪ হাজার শরণার্থী থাকলেও এর বাইরে পাঁচ লাখের বেশি রোহিঙ্গা বাংলাদেশে রয়েছে বলে সরকারের হিসাব। বাংলাদেশি পাসপোর্ট নিয়ে রোহিঙ্গারা বিদেশে বিভিন্ন অপরাধে জড়িয়ে পড়ছেন বলে অভিযোগ রয়েছে। মিয়ানমার হয়ে মাদক ও মানব পাচারসহ বিভিন্ন অপরাধমূলক কাজেও তাদের ব্যবহার করা হচ্ছে বলে গোয়েন্দাদের দাবি।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী রোহিঙ্গা ইস্যুতে মিয়ানমার ও বাংলাদেশের মধ্যে ১৯৯২ সালে স্বাক্ষরিত চুক্তিটি উপস্থাপন করেন। তিনি বলেন, চুক্তিতে রাখাইনের রোহিঙ্গাদের মিয়ানমার সমাজের সদস্য হিসাবে উল্লেখ করা হয়েছে। নিজেদেরকে বাঙালি হিসাবে প্রমাণিত না করা পর্যন্ত মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের সে দেশের আদমশুমারির বাইরে রাখার ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী। এ বিষয়ে মিয়ানমারের ওপর চাপ সৃষ্টি করতে ওআইসি মহাসচিবের আহ্বানের প্রতি তিনি সমর্থন জানান।

Comments

comments