ব্রেকিং নিউজ

৭জুন খালেদা-মোদি বৈঠক, ফুরফুরে মেজাজে বিএনপি

al-BNP20130904203229দ্য বিডি এক্সপ্রেসঃ আগামী ৬ জুন বাংলাদেশ সফরে আসছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। পরের দিন তিনি বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করবেন বলে বিএনপির সূত্র নিশ্চিত করেছে। মোদির সাথে  বেগম জিয়ার বৈঠকের খবরে দলের নেতা কর্মীরা ফুরফুরে মেজাজে আছেন।

আগামী ৭ জুন রাজধানীর হোটেল সোনারগাঁওয়ে খালেদা জিয়া ও নরেন্দ্র মোদির মধ্যে সৌজন্য সাক্ষাৎ হবে। সম্ভাব্য এই তারিখ ধরেই বিএনপির পররাষ্ট্র উইং এ বিষয়ে কাজ করছে। দু-একদিনের মধ্যেই ভারতের পররাষ্ট্র উইং বিএনপিকে বৈঠকের বিষয়টি নিশ্চিত করবে।

বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ইনাম আহমেদ চৌধুরী বলেন, ‘আমরা বৈঠকের বিষয়ে আশাবাদী। তাদের মধ্যকার বৈঠক নিয়ে আমাদের প্রস্তুতি চলছে।’

তিনি বলেন, ‘বিজেপি এবং বিএনপির পররাষ্ট্র উইং এ ব্যাপারে আলোচনা অব্যাহত রেখেছেন। বিষয়টি চূড়ান্ত হলেই ভারত সরকারের ফরেন অফিস আনুষ্ঠানিকভাবে জানাবে।’

জানা গেছে, ২৪ মে বিএনপির একটি প্রতিনিধি দল ভারতে গিয়ে এই বৈঠকের বিষয়ে আলোচনা করেছে।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আবদুল মঈন খান ও চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা সাবিহ উদ্দিন আহমেদ বিষয়টি নিয়ে কাজ করছেন। এছাড়া জেল থেকে মুক্তি পেয়ে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শমসের মুবিন চৌধুরীও কাজ করছেন।

ইনাম আহমেদ চৌধুরী বলেন, ‘বাংলাদেশের রাজনৈতিক পরিস্থিতি ও বাংলাদেশের স্বার্থসংশ্লিষ্ট বিষয়গুলোর পাশাপাশি বাংলাদেশ-ভারতের চলমান বন্ধুত্ব-সম্প্রীতি আরো বেশি জোরদার কিভাবে করা যায়, তা নিয়ে আলোচনা হবে। একই সঙ্গে সীমান্ত চুক্তি ফলপ্রসূ করায় মোদিকে ধন্যবাদ জানাবেন খালেদা জিয়া।’

তবে বিএনপির অনেকের বৈঠক নিয়ে সংশয় প্রকাশ করেছেন। তাদের যুক্তি, চীনের উপপ্রধানমন্ত্রী লিউ ইয়ান তং বাংলাদেশ সফর করলেও বিএনপির সাথে সৌজন্য সাক্ষাত করেননি।

এর আগে ভারতের পররাষ্ট্র সচিব জয়শঙ্কর এলেও তার সঙ্গে দেখা হয়নি বেগম জিয়ার। বর্তমান পেক্ষাপটে ভারতের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে খালেদা জিয়ার বৈঠকটি সত্যিকার অর্থে বিএনপির কূটনৈতিক সফলতার ওপর নির্ভর করছে বলেই তারা মনে করছেন।

এ বিষয়ে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা সাবিহ উদ্দিন আহমেদ বলেন, ‘আমরা মোদির সঙ্গে বৈঠকের বিষযে আশাবাদী। আমরা চাচ্ছি ভারতের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে বিএনপি চেয়ারপারসনের সৌজন্য সাক্ষাৎটি যেন হয়।’

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ মোদির বাংলাদেশ সফরে দুই দেশের মধ্যে তিস্তার পানি চুক্তি, সীমান্ত হত্যাসহ অমীমাংসিত ইস্যুর সমাধান হবে এমন প্রত্যাশা করছে বিএনপি। একইসঙ্গে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার পক্ষ থেকে তার বাংলাদেশ সফরকে স্বাগত জানানো হয়েছে।

বিএনপির মুখপাত্রের দায়িত্বে থাকা আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ড. আসাদুজ্জামান রিপন এ সব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘মোদির বাংলাদেশ সফরে অভ্যর্থনা দেওয়ার জন্য দেশের মানুষ ও বিএনপি প্রস্তত। আমি বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার পক্ষ থেকে তাকে স্বাগত জানাই। আশা করি মোদির বাংলাদেশ সফরে অমীমাংসিত ইস্যু সমাধান হবে। বিশেষ করে তিস্তার সমস্যা, সীমান্ত হত্যা বন্ধ হবে বলে আশা করছে বিএনপি।

Comments

comments