ব্রেকিং নিউজ

মোদির বাংলাদেশ সফর, দুই বিলিয়ন ডলার ঋণ সহায়তার আশ্বাস

নরেন্দ্র মোধিদ্য বিডি এক্সপ্রেসঃ ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ৩৬ ঘণ্টার সফরে ঢাকা আসছেন। তার এ সফরে দুই দেশের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক বিভিন্ন বিষয়ে কমবেশি ১৫টি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হবে।

এ ছাড়া বাংলাদেশকে দুই বিলিয়ন মার্কিন ডলারের সমপরিমাণ মুদ্রা ঋণ হিসাবে আর্থিক সহায়তা দেবে দেশটি। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে। নরেন্দ্র মোদির সফরে ঢাকা-নয়াদিল্লির সম্পর্ক নতুন মাত্রায় উন্নীত হবে।’

ভারতীয় বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মোদী তাঁর ঢাকা সফরে বাংলাদেশিদের জন্য বেশ কিছু চমকপ্রদ ঘোষণা দিতে পারেন। এর একটি হতে পারে ভারতের কিছু বিমানবন্দরে বাংলাদেশিদের জন্যও আগমনী ভিসা চালু করা। বর্তমানে বেশ কিছু দেশ এ সুবিধার পেলেও ভারতের সর্ববৃহত্ সীমান্তবর্তী বাংলাদেশ এর বাইরে রয়েছে।

মোদি আসার পর স্থলসীমান্ত চুক্তি বাস্তবায়ন করতে দুই দেশ একটি সম্মতিপত্রে অনুস্বাক্ষর করবে। এর পর ছিটমহল বিনিময় শীঘ্রই শুরু হবে। এ বিষয়ে দুই দেশই দুই দেশকে তালিকা দেবে।

ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একটি সূত্রে জানা গেছে, বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে চান, বিষয়টি বিবেচনায় রেখেছে ভারত।

নরেন্দ্র মোদির সফরে তিস্তা চুক্তির সম্ভাবনা রয়েছে। পাঁচ মুখ্যমন্ত্রীসহ দুই শতাধিক সফরসঙ্গী নিয়ে বাংলাদেশে আসবেন নরেন্দ্র মোদি। সুত্রমতে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও মোদির সফরসঙ্গী হিসেবে ঢাকা আসছেন।

মোদির সফরে তিস্তা নদীর পানিবণ্টন চুক্তিসহ বিভিন্ন বিষয়ে কমবেশি ১৫টি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর হতে পারে। সমুদ্রসীমার নিরাপত্তায় উভয় দেশের কোস্টগার্ডের সহযোগিতা সংক্রান্ত সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হতে পারে।

বাংলাদেশে প্রস্তাবিত গভীর সমুদ্রবন্দর নির্মাণে ভারত আগ্রহ দেখাতে পারে। বিষয়টি খুবেই স্পর্শকাতর বলে বিশেষজ্ঞ মহল মনে করেন।

যোগাযোগ, শিক্ষা, প্রযুক্তি, অবকাঠামো ও স্বাস্থ্য খাতের উন্নয়নে নরেন্দ্র মোদির ঢাকা সফরে বাংলাদেশকে ভারতের পক্ষ থেকে দুই বিলিয়ন মার্কিন ডলারের সমপরিমাণ অর্থ ঋণ হিসেবে সহায়তা দেওয়া হবে। উক্ত ঋনের মাধ্যমে বিটিআরসির জন্য ৫০০টি ট্রাক, বেশকিছু দ্বিতল ও আর্টিকুলেটেড বাস কেনা হবে। সড়ক ও আন্তঃমহাসড়ক সংস্কার ও উন্নয়নের জন্য প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতি সংগ্রহ করতে ওই ঋণের অর্থ ব্যয় করা হবে। ঋণের ৭৫শতাংস অর্থ ব্যয় হবে ভারত থেকে যত্নপাতি আমদানিতে।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানায়, বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠক করবেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী।

Comments

comments