ব্রেকিং নিউজ

২০ দলীয় জোট থেকে জামায়াতকে বাদ দিতে ছাচ্ছেন খালেদা জিয়া!

Khaleda-ziaদ্য বিডি এক্সপ্রেসঃ যুদ্ধাপরাধের দায়ে অভিযুক্ত জামায়াতে ইসলামকে নিয়ে বিএনপির সরকার বিরোধী আন্দোলনে দেশে বিদেশে ব্যাপক সমালোচনার মুখে বেগম খালেদা জিয়া জামায়াতকে ছাড়ার কথা ভাবছেন বলে দলীয় বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে। রাজনৈতিক জীবনে সবচেয়ে কঠিন সময়ের মুখোমুখি এখন দুই দুইবারের প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া। তার দল বিএনপিও অতীতে এমন বৈরী পরিস্থিতির মুখোমুখি হয়নি। জাতীয় ও আন্তর্জাতিকভাবে বিএনপি নেতৃত্ব এতদিন পশ্চিমাদের ওপর নির্ভরশীল থাকলেও হাইকমান্ডের এখন মোহভঙ্গ হতে শুরু করেছে। ২০০১ সালের নির্বাচনে জামায়াতকে নিয়ে দুই-তৃতীয়াংশ আসনে জয়লাভ করে ক্ষমতায় আসা বিএনপি এখন হাড়ে হাড়ে টের পাচ্ছে স্বাধীনতাবিরোধী যুদ্ধাপরাধের অভিযোগে অভিযুক্ত দলটি তাদের জন্য বোঝাই নয়, রীতিমতো অভিশাপ হয়ে দাঁড়িয়েছে। একটি সূত্র জানায়, জামায়াতের সহিংস রাজনীতি ও যুদ্ধাপরাধের মতো গুরুতর অভিযোগের বোঝা বহন করা আর উচিত কিনা তা বিএনপির শীর্ষ নেতৃত্ব ইতিমধ্যে বিচার বিশ্লেষণ করেছেন। সূত্র জানায়, আন্তর্জাতিক চাপ ও দেশের মানুষের মনোভাব বিবেচনায় নিয়ে জামায়াতকে ছাড়াও নীতিগত সিদ্ধান্তও নেয়া হয়েছে। সিদ্ধান্ত অনুযায়ী উপযুক্ত সময়ই জামায়াতকে ছাড়ার আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেবে। ইউরোপীয় ইউনিয়নের পর মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রও জামায়াতের ব্যাপারে নেতিবাচক অবস্থান নিয়েছে। বৃহত্তম গণতান্ত্রিক দেশ ভারত বিএনপি জামায়াত শাসনামলের জঙ্গিবাদ, সন্ত্রাসবাদের ঘাঁটি হিসেবে বাংলাদেশের মাটিকে ব্যবহার করতে দেয়ায় নিজের নিরাপত্তা নিয়ে আগেই শঙ্কিত ছিল। ওয়ান ইলেভেনের পর ব্যাপক সংখ্যাগরিষ্টতা নিয়ে ক্ষমতায় আসা আওয়ামী লীগ নির্বাচনী অঙ্গীকার পূরণে যুদ্ধাপরাধীদের বিচার শুরু করে।  ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি নির্বাচনের আগে দেশজুড়ে সংঘটিত সহিংস হরতাল-অবরোধের কর্মসূচি বিএনপি জামায়াতকে এক পাল্লায় তুলে দিলেও সে আন্দোলন ভোট রুখতে পারেনি। সংবিধানের দোহাই দিয়ে ক্ষমতায় আসা আওয়ামী লীগ দ্রুতই পশ্চিমাদের চাপে নির্বাচন দেবে বাধ্য হবে মনে করে বিএনপির যে নেতৃত্ব তৃপ্তির ঢেঁকুর তুলেছিলেন তাদের মোহ ভঙ্গ হয়েছে। পশ্চিম থেকে পূর্ব পর্যন্ত সরকার কূটনৈতিক সম্পর্ক টানাপড়েনের ভেতর থেকে বেরিয়ে উষ্ণ করে ফেলেছে। সর্বশেষ বিএনপির তিন মাসের টানা অবরোধ-হরতালে জামায়াতকে তো পাশে পায়ইনি উল্টো নিজেদের নেতাকর্মীরা মামলার জালে আটকা পড়ে হয় কারাবন্দি না হয় ফেরারি হয়েছে। বিএনপির শুভাকাঙ্ক্ষীরাও মনে করেন জামায়াতকে ছেড়ে ডান নয়, বাম নয়, মধ্যপন্থি সোজা পথ নিয়েই বিএনপি নেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে রাজনীতির রণকৌশল নতুন করে সাজাতে হবে।

Comments

comments