ব্রেকিং নিউজ

নিখোঁজ বিএনপি নেতা সালাহউদ্দিন ভারতে গ্রেপতার

সালাহউদ্দিন আহমেদদ্য বিডি এক্সপ্রেসঃ বিএনপির ‘নিখোঁজ’ যুগ্ম মহাসচিব সালাহ উদ্দিন আহমেদ ভারতের মেঘালয় থেকে ফোন দিয়েছে বলে দাবি করেছেন তার স্ত্রী হাসিনা আহমেদ। এর মাধ্যমে দীর্ঘ ৬৩ দিন পর তার সন্ধান মিলল।

মেঘালয় রাজ্যের রাজধানী শিলং-এ সালাহ উদ্দিন আহমেদ সোমবার গ্রেফতার করা হয়েছে বলে দেশটির এক সংবাদ মাধ্যম জানিয়েছে।

গুলশানের নিজের বাসায় মঙ্গলবার দুপুরে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এই দাবি করে বলেন, ‘দুপুরের আগে মেঘালয় ইনস্টিটিউট অব মেন্টাল হেলথ অ্যান্ড নিউরোসায়েন্স হাসপাতালের কর্তৃপক্ষ তাকে ফোন দিয়ে জানান- সালাহ উদ্দিন আহমেদ সেখানে চিকিৎসাধীন আছেন এবং তিনি কথা বলতে চান। এ সময় বেশ কিছুক্ষণ তিনি সালাহ উদ্দিন আহমেদের সঙ্গে কথা বলেন।’

হাসিনা আহমেদ বলেন, ‘মেঘালয় ইনস্টিটিউট অব মেন্টাল হেলথ অ্যান্ড নিউরো সায়েন্স হাসপাতালটি ভারতের মেঘালয় প্রদেশের শিলংয়ের পাসতোর হিলসে অবস্থিত। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ আমাদের ফোন করে বলেন, আপনার স্বামী আপনার সঙ্গে কথা বলবেন। তখন আমি ফোন ধরলে অপর প্রান্ত থেকে আওয়াজ আসে, ‘আমি সালাহ উদ্দিন আহমেদ বলছি, আমি একটি মানসিক হাসপাতালে আছি। সুস্থ আছি, জীবিত আছি। তুমি সবাইকে এ খবরটা জানিয়ে দাও। সবাই যেন আমার জন্য দোয়া করেন।’’

সালাহ উদ্দিন আহমেদের কণ্ঠ চিনতে পেরেছেন কি না- গণমাধ্যমকর্মীদের এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, ‘আমি এক শ’ বছর পরও তার (সালাহ উদ্দিন) গলা চিনতে পারব। তিনিই ফোন দিয়েছেন।’

সালাহ উদ্দিনকে ফিরিয়ে আনতে সরকারসহ সবার সহযোগিতা কামনা করে হাসিনা আহমেদ বলেন, ‘খুব দ্রুত চেষ্টা করছি, ওনার (সালাহ উদ্দিন) কাছে পৌঁছাতে।’

দেশবাসীর প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে হাসিনা আহমেদ বলেন, দেশবাসী ঘটনার পর থেকেই তাদের পরিবারের সঙ্গে ছিলেন। তাদের সাহস দিয়েছেন। দোয়া করেছেন। দেশবাসীর কাছে তারা কৃতজ্ঞ।

তিনি জানান, সালাহ উদ্দিনের সঙ্গে কথা বলার পর এই খবর জানানোর জন্য খালেদা জিয়ার বাসায় যান। খালেদা জিয়া তার (সালাহ উদ্দিন) সন্ধান পাওয়ার খবর জানার পর শুকরিয়া আদায় করেছেন।

গত ১০ মার্চ রাতে উত্তরার একটি বাসা থেকে গোয়েন্দা পুলিশ পরিচয়ে বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব সালাহ উদ্দিন আহমেদকে তুলে নিয়ে যাওয়া হয় বলে তার পরিবার ও বিএনপি অভিযোগ করে আসছে। যদিও আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সেই অভিযোগ বরাবরই নাকচ করে দিয়েছে। নিখোঁজ বিএনপির যুগ্ম মহাসচিবকে খোঁজা হচ্ছে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছিলেন, সালাহ উদ্দিনকে পেলে গ্রেপ্তার করবে পুলিশ।

সালাহ উদ্দিন আহমেদের খোঁজ চেয়ে উচ্চ আদালতে রিট আবেদনও করেন তার স্ত্রী হাসিনা আহমেদ। এ ছাড়া এক মাসেরও কম সময়ে ব্যবধানে স্বামীর সন্ধানে প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ চেয়ে দুইবার স্মারকলিপি দিয়েছেন হাসিনা আহমেদ।

 

Comments

comments