ব্রেকিং নিউজ

পঞ্চগড়ে কুলবড়ই চাষে স্বাবলম্বী দুইশ’ কৃষক

কুলপ্রতিবেদকঃ ভালো ফলন আর দাম ভালো পাওয়ায় পঞ্চগড়ে কুলবড়ইয়ের চাষ বাড়ছে। বিশেষ করে দেবীগঞ্জ ও বোদা উপজেলায় এই বড়ইয়ের চাষ হচ্ছে বেশি। ইতিমধ্যে এই দুই উপজেলার প্রায় দুইশ’ কুলচাষি স্বাবলম্বী হয়ে উঠেছেন। আরো অনেকেই কুল চাষ করে লাভবান হচ্ছেন। তারা বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট (বারি) উদ্ভাবিত আপেল কুল ও বাউকুল জাতের বড়ই চাষ করে এমন সাফল্য অর্জন করেছেন।
জানা গেছে, গত কয়েকবছর যাবৎ কুল চাষ লাভজনক হওয়ায় দেবীগঞ্জ ও বোদার বিভিন্ন অঞ্চলের চাষিরা তাদের বাগানে ও বাড়িতে কুল চাষ সম্প্রসারণ করেছেন। চাষিরা বলেছেন, খুব অল্প সময়ের মধ্যেই আপেল কুল ও বাউকুল গাছে ফল ধরে। মাত্র ৪ মাস সময়ের মধ্যেই এ জাতীয় কুল গাছে ফলন আসে। ফলে অনেক যুবক কুল চাষে এগিয়ে এসেছেন এবং অর্থনৈতিকভাব অনেকেই স্বাবলম্বী হয়ে উঠেছেন।
কৃষি বিভাগ সূত্র জানায়, দেবীগঞ্জ উপজেলায় প্রায় দুইশ’ কৃষক কুলবড়ই চাষে সম্পৃক্ত রয়েছেন। তাদের মধ্যে অনেকেই কুল চাষ করে অর্থনৈতিকভাবে স্বচ্ছল হয়েছেন।
দেবীগঞ্জ উপজেলার কৃষি কর্মকর্তা মো. আব্দুল্লাহ-আল-মামুন জানান, এখানকার চাষিরা বাউকুল ও আপেলকুলসহ বিভিন্ন জাতের বড়ইয়ের চাষ করছেন। বাজারে এসব বড়ই উচ্চ মূল্যে বিক্রি হয়ে থাকে।
দেবীগঞ্জ উপজেলার দেবীডুবা গ্রামের মানিক মিয়া গত ছয় বছর যাবৎ কুল চাষের সঙ্গে সম্পৃক্ত। তিনি জানান, এবার প্রায় ৮ বিঘা জমিতে তিনি কুলের চাষ করেছেন। এবার কুল চাষে তার প্রতি বিঘা জমিতে ৩০/৩২ হাজার টাকা খরচ হয়েছে। তিনি আশা করছেন এবার কুল চাষে তার ৩ থেকে ৪ লাখ টাকা লাভ হবে।

Comments

comments