ব্রেকিং নিউজ

পিলখানা হত্যাকাণ্ড পরিকল্পিত : ন্যাপ

ন্যাপপ্রতিবেদকঃ বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টির (ন্যাপ) চেয়ারম্যান জেবেল রহমান গানি অভিযোগ করেছেন, পিলখানা হত্যাকাণ্ড ছিল পরিকল্পিত। এ ঘটনা সাম্রাজবাদী শক্তি ও তাদের দোসরদের নীলনকশার অংশ। এ ঘটনার মাধ্যমে সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিডিআরকে ধ্বংস করা হয়েছে।

সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে হত্যাকাণ্ডে জড়িতদের শাস্তি দিয়ে জাতিকে কলঙ্কমুক্ত করারও দাবি জানান বিএনপি নেতৃত্বধীন ২০ দলীয় জোটের শরিক দলের এ নেতা।

শুক্রবার সকালে গুলশানের একটি রেস্তোরাঁয় পিলখানা ট্রাজেডির ৬ষ্ঠ বার্ষিকী উপলক্ষে ন্যাপ আয়োজিত স্মরণসভায় তিনি এসব কথা বলেন।

দেশের নিরাপত্তা ব্যবস্থাকে পঙ্গু করতেই পিলখানায় সুক্ষ্ম কৌশলে সেনা হত্যাকাণ্ড চালানো হয়েছিল উল্লেখ করে জেবেল রহমান বলেন, ‘দুনিয়ার কোনো যুদ্ধে এক সঙ্গে এত সেনা কর্মকর্তা নিহত হওয়ার নজির নেই। অথচ অত্যন্ত ঠাণ্ডা মাথায় সুপারিকল্পিতভাবে বিডিআর সদর দফতরে সেনা সদস্যদের হত্যা করা হয়েছে।’

তিনি আরো বলেন, ‘বিদ্রোহ শুরু হওয়ার পর বিডিআরের ডিজিসহ শীর্ষ অনেক কর্মকর্তা বিভিন্ন জনকে ফোন করে সাহায্য চেয়েছিলেন। তাদের উদ্ধারের জন্য আকুতি জানিয়েছিলেন। কিন্তু কেন সময়ক্ষেপণ করে নিহতের তালিকা দীর্ঘ করা হল, এর রহস্য উদঘাটন করতে হবে।’

পিলখানা হত্যাকাণ্ডের ছয় বছর পরও কেন এর তদন্ত প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়নি, তা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন জেবেল রহমান।

ন্যাপ চেয়ারম্যান বলেন, ‘২৫ ফেব্রুয়ারি পিলখানা ট্রাজেডি স্মরণে জাতীয় শোক দিবস পালন করা আমাদের নৈতিক দায়িত্ব। এটি না করলে ইতহাসের কাঠগড়া থেকে আমাদের মুক্তি নাই।’

দলের মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া বলেন, ‘পিলখানা হত্যাকাণ্ড বিচ্ছিন্ন কোনো ঘটনা নয়, এটি পরিকল্পিত বড় ষড়যন্ত্রের অংশ। বাংলাদেশকে ব্যর্থ ও দুর্বল করার জন্য ষড়যন্ত্রকারীরা বিডিআরকে ধ্বংস আর সেনাবাহিনীর সদস্যদের মনোবল ভাঙার জন্য এই হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছে। রাজনৈতিক কূটচালের অংশ হিসেবে পিলখানা হত্যাকাণ্ড ঘটেছিল।’

তিনি বলেন, ‘পিলখানা হত্যাকাণ্ডের জন্য কেবল বাইরের ষড়যন্ত্রকে দায়ী করলে চলবে না। প্রথম এবং প্রধান দায়ী হলো সা¤্রাজ্যবাদী শক্তির এ দেশীয় দোসররা। তাদের তাবেদার সরকার বাংলাদেশের সীমান্ত মুছে ফেলে প্রভুদের এজেন্ডা বাস্তবায়নের অংশ হিসেবেই পিলখানা ট্রাজেডি ঘটিয়েছে।’

সভায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন দলের যুগ্মণ্ডমহাসচিব স্বপন কুমার সাহা, দপ্তর সম্পাদক মো. নুরুল আমান চৌধুরী, অর্থ সম্পাদক আহসান হাবিব খাজা, প্রচার সম্পাদক মো. শহীদুননবী ডাবলু, সাংগঠনিক সম্পাদক মো. কামাল ভুইয়া প্রমুখ।

Comments

comments