ব্রেকিং নিউজ

বোমা হামলার অর্থদাতা ও পরিকল্পনাকারীদের চিহ্নিত করা হয়েছে–আই জি পি

cbfe5acfd7b520c103e932b0cd593031-Untitled-2দ্য বিডি এক্সপ্রেসঃ ২০ দলীয় জোটের চলমান অবরোধ-হরতালের মধ্যে গাড়িতে আগুন দেওয়া, বোমা হামলার অর্থদাতা, পরিকল্পনাকারী, নির্দেশদাতাদের চিহ্নিত করা হয়েছে। এ ব্যাপারে যথেষ্ট সাক্ষ্য প্রমাণ আছে। অনেকে আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিও দিয়েছেন। নিষিদ্ধ ঘোষিত হিযবুত তাহরীরকে হুমকি বলে মনে করে না পুলিশ। আজ বুধবার রাজধানীর কুর্মিটোলায় র‍্যাবের সদর দপ্তরে এক সংবাদ সম্মেলনে পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) এ কে এম শহীদুল হক এই অভিমত ব্যক্ত করেন।

আইজিপি বলেন, ‘আমরা মনে করি না যে তারা আইএসের মতো।’
সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক সাময়িকী কাউন্টার টেররিজম এক্সচেঞ্জে (সিটিএক্স) প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে বলা হয়, জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেটের (আইএস) চেয়েও ভবিষ্যতে বিপজ্জনক হয়ে উঠতে পারে ইসলামপন্থী আরেক জঙ্গি সংগঠন হিযবুত তাহরীর। নিষিদ্ধ এই সংগঠন বিশ্বজুড়ে নিরাপত্তা ও গোয়েন্দা কর্মকর্তাদের নজরদারি চাতুর্যের সঙ্গে এড়িয়ে চালিয়ে যাচ্ছে তাদের কর্মকাণ্ড।
নিরীহ মানুষের পায়ে কেন গুলি করা হচ্ছে—এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি সাংবাদিকদের পাল্টা প্রশ্ন ছুড়ে দিয়ে বলেন, ‘তাঁরা যে নিরীহ লোক সেটা আপনারা কী করে বুঝবেন?’ তিনি বলেন, লোকটা নিরীহ কি না, সেটা তো ত
দন্তের বিষয়। আক্রান্ত হলে আত্মরক্ষার অধিকার পুলিশের আছে। আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে পদে পদে জবাবদিহির মুখে পড়তে হয়।
২০ দলীয় জোটের চলমান অবরোধ-হরতালের মধ্যে গাড়িতে আগুন দেওয়ার ঘটনার প্রেক্ষাপটে বর্তমানে রাত নয়টার পর মহাসড়কে যান চলাচল বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছে সরকার। আবার কবে রাতের বেলা যানবাহন চলাচল শুরু হবে—জানতে চাইলে শহীদুল হক বলেন, পরিস্থিতির অনেক উন্নতি হয়েছে।

 

হুকুমের আসামি খালেদা জিয়াকে গ্রেপ্তার করা হবে কি না—জানতে চাইলে আইজিপি বলেন, ‘এটা এ মুহূর্তে বলা যাবে না। পুরো বিষয়টি তদন্তকারী কর্মকর্তাদের ওপর নির্ভরশীল। তাঁরা যদি সাক্ষ্যপ্রমাণের ভিত্তিতে সহায়তা চায়, আমরা সহায়তা দেব।’
সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকেরা জানতে চান, দেশে কী এমন পরিস্থিত হয়েছে যে রাস্তায় ট্রাফিক পুলিশ বুলেটপ্রুফ জ্যাকেট পরে দায়িত্ব পালন করছেন? এর জবাবে শহীদুল হক বলেন, পুলিশের যখন যা দরকার তখন সে পোশাক পরে। সে চাইলে ইচ্ছেমতো পোশাক পরতে পারে না। তাকে সরকারের অনুমোদিত পোশাক পরতে হয়।
বোমা হামলার নেপথ্যের লোকজন শনাক্ত হয়েছে কি না, এমন প্রশ্নের জবাবে আইজিপি বলেন, হামলার অর্থদাতা, পরিকল্পনাকারী, নির্দেশদাতাদের চিহ্নিত করা হয়েছে। এ ব্যাপারে যথেষ্ট সাক্ষ্য প্রমাণ আছে। অনেকে আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিও দিয়েছেন।
আজ সকালে র‍্যাবের সদর দপ্তরে ১৪টি ব্যাটালিয়নের অধিনায়কদের সম্মেলন ছিল। এ উপলক্ষে আইজিপি সেখানে যান। তিনি অধিনায়কদের সঙ্গে বৈঠক করেন। এরপর তিনি সংবাদ সম্মেলন করেন। এ সময় সেখানে র‍্যাবের মহাপরিচালক বেনজীর আহমেদ, অতিরিক্ত মহাপরিচালক কর্নেল জিয়াউল আহসানসহ উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

Comments

comments