ব্রেকিং নিউজ

পুলিশ বাহিনীকে শান্তিরক্ষা মিশন থেকে বাদ দেয়ার আহবান কাদের সিদ্দিকীর

kader siddikiদ্য বিডি এক্সপ্রেসঃ কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি কাদের সিদ্দিকী এক বিবৃতিতে ‌জাতিসংঘের শান্তিরক্ষা মিশনে নিয়োজিত বাংলাদেশের আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে বাদ দেয়ার দাবি তোলেন। বিবৃতিতে তিনি বলেন, 'যে দেশের আইনশৃঙ্খলা বাহিনী নিরীহ মানুষ হত্যা করে, যাদের নিজেদের দেশে শান্তি নেই, তারা অন্য দেশে কীভাবে শান্তিরক্ষী হিসেবে কাজ করবে?' শান্তি ও সংলাপের দাবিতে মতিঝিলে দলীয় কার্যালয়ের সামনে অবস্থান কর্মসূচীর ২০তম দিনে তিনি 'আইনশৃঙ্খলা বাহিনী আইনের নামে বেআইনী কাজ করলে তাদের জাতিসংঘের শান্তিরক্ষা বাহিনী থেকে বাদ দেয়া উচিত' বলে মন্তব্য করেন।

কাদের সিদ্দকী আরও বলেন, 'বাংলাদেশের আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা পৃথিবীর বহু দেশে শান্তি স্থাপনে অসাধারণ ভূমিকা রেখেছে, কিন্তু আজ নিজের দেশে তারা অশান্তির জনক।' তিনি প্রধানমন্ত্রীর কাছে দেশের মানুষের কল্যাণে এবং শান্তি স্থাপনে যার সাথে প্রয়োজন আলোচনার আহ্বানের বিষয়টি স্মরণ করিয়ে বলেন, ‌'একজন বিরোধী দলের নেত্রীর কাছে দাবী করেছি, হরতাল-অবরোধ প্রত্যাহার বা স্থগিত করে সবাইকে নিয়ে নতুন আন্দোলনের কলাকৌশল ঠিক করুন। কিন্তু কেউ কথা শুনতে চান না।'

তিনি বলেন, ‌'আমার স্ত্রীর সাথে প্রধানমন্ত্রী দেখা করেননি, আবার খালেদা জিয়ার সাথেও দেখা করতে দেননি। বিদেশী রাষ্ট্রদূতরা বেগম জিয়ার সাথে দেখা করতে পারে আর দেশের নাগরিকরা পারবে না, এটা কেমন কথা? তাহলে কি খালেদা জিয়া গৃহবন্দী?'

টানা অবস্থান কর্মসূচীতে কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের যুগ্ম-সম্পাদক ইকবাল সিদ্দিকী, যুগ্ম-সম্পাদক আনিসুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক শফিকুল ইসলাম দেলোয়ার, আইন সম্পাদক এডভোকেট মাহবুব হাসান রানা, যুব আন্দোলনের আহবায়ক হাবিবুন নবী সোহেল, ছাত্র আন্দোলনের আহবায়ক রিফাতুল ইসলাম দীপ, যুগ্ম-আহবায়ক কাওসার জামান খান, বিল্লাল হোসেন, সাইফুল ইসলাম শিমুল, আলী হেসেন মন্ডল, টিপু সুলতান, ফারুক আহমেদসহ শতাধিক নেতাকর্মী পালাক্রমে অবস্থান করছেন বলে তাদের পক্ষ থেকে জানানো হয়। ১৮ ফেব্রুয়ারি বুধবার বেলা ১২টায় পরবর্তী কর্মসূচি ঘোষণার তারিখ নির্ধারণ করেছে দলটি।

 

Comments

comments