ব্রেকিং নিউজ

১৫০০বছরের পুরানো বাইবেলে কি লেখা ছিল?

imagesদ্য বিডি এক্সপ্রেসঃ পাওয়া গেল ১৫০০ বছরের পুরোনো বাইবেল।”- শিরোনামটা শুনে বরাবরের মতই বিশ্বাসের পূর্বেই বাঙালীর ‘তিলকে তাল’ বানাইবার বিষয়টা মাথায় আসল।
নিউজটা পেলাম কয়েকদিন পূর্বে ফেব্যুর হোমপেজে। অতঃপর তথ্যটার ব্যাপারে যথেষ্ঠ ঘাটাঘাটি করে সত্যতা আবিস্কার কত্তে সক্ষম হলেম, আলহামদুলিল্লাহ।
বুঝলেম না নিউজটা এতদিন পরে কিভাবে ভার্চ্যুয়াল মিডিয়ায় আসল কেননা নিউজটা সর্বপ্রথম আসে লন্ডনেরই প্রসিদ্ধ দৈনিক ‘ Daily Mail‘ এর ২৪শে ফেব্রুয়ারী, ২০১২ এর প্রতিবেদনে। অনলাইন সাইটের লিঙ্কটা হল এই[[ http://www.dailymail.co.uk/news/article-2105714/Secret-14million-Bible-Jesus-predicts-coming-Prophet-Muhammad-unearthed-Turkey.html ]] । ‘খুব খেয়াল করে দেখুন’, সংবাদপত্রটি কিন্তু মুসলিম পরিচালিত নয়।
দেড় হাজার বছরের পুরোনো বাইবেল এর আবিষ্কারে ভ্যাটিকান সিটিতে যথেষ্ট সাড়া পড়েছিল। বাইবেলটি স্বর্ণাক্ষরে লিখিত এবং প্রত্নতাত্ত্বিকগবেষকরা এর বয়সের ব্যাপারে একমত।
বাইবেলটি বর্তমানে প্রচলিত বাইবেল থেকে সম্পূর্ণরূপেই ভিন্ন এবং ইসলাম এ বর্ণিত যীশুর(ঈসা আঃ) ধর্মীয় দৃষ্টিকোণের সঙ্গে সম্পূর্ণ সাদৃশ্য পাওয়া যায়।
উক্ত বাইবেলে যীশুকে ইশ্বরপুত্র নয় বরং ইশ্বর প্রেরিত দূত(রাসূল) হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে। সবচেয়ে বৈপ্লবিক তথ্যটা ছিল সেখানে মুহাম্মদ(সঃ) এর নামসহ আগমনের ভবিষ্যদ্বাণী করা হয়েছে।
বাইবেলটি তুর্কিশদের কাছেই সংরক্ষিত ছিল। পরবর্তীতে পোপ তা দেখার বায়না ধরে। তবে ইসলামের সাথে সাদৃশ্য থাকায় পোপ সাহেব সংবাদটিকে অস্বীকারের পাশাপাশি গোপণ করবারও যথেষ্ট চেষ্টা করেন। তাই তো ২০১২ এর এতবড় আলোড়নকারী সংবাদটি সন্দেহের তৈল লেপন করিয়া হোমপেজে আবির্ভূত হল ২০১৪ তে।
সবশেষে আধুনিক বাইবেল কর্তৃক যীশুর(ঈসা আঃ) উক্ত একটি আয়াত দিয়ে শেষ করছি,

“তোমাদের নিকট অনেক কিছু বলার ছিল তবে আমি তাতে অক্ষম। যখন সত্যের বার্তাবাহক আসবেন তিঁনিই তোমাদের সকল কিছু বর্ণণা করবেন। কেননা তিঁনি নিজ থেকে কিছু বলবেন না, তিঁনি তাই বলবেন যা তাঁকে ইশ্বর আদেশ করেন।”(গসপেল অফ জন অধ্যায়ঃ১৬ আয়াতঃ১২-১৪)

Comments

comments