ব্রেকিং নিউজ

পশ্চিমবঙ্গে সাম্প্রদায়িক রাজনীতি সহ্য করা হবে না: সুব্রত মুখোপাধ্যায়

12e3e18acf764f41b3f1dbf0add0cb9c_XLদ্য বিডি এক্সপ্রেসঃ পশ্চিমবঙ্গের মন্ত্রী ও সিনিয়র তৃণমূল নেতা সুব্রত মুখোপাধ্যায় বলেছেন, ‘ভারতের সংবিধান সেক্যুলার। আমরা সাম্প্রদায়িক রাজনীতি সহ্য করব না। আমরা বিজেপির চ্যালেঞ্জকে গ্রহণ করলাম। আমরা কখনই সাম্প্রদায়িক রাজনীতির অনুমতি দেব না।’

আজ (শনিবার) কোলকাতার কালীঘাটে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়ের বাড়িতে দলীয় কোর কমিটির বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে হিন্দুত্ববাদী বিজেপির বিরুদ্ধে তীব্র সমালোচনা করেন দলের মহাসচিব ও মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় এবং মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায়।

সুব্রত মুখোপাধ্যায় বলেন, ‘ওরা জোর করে ধর্মান্তরকরণের রাজনীতি করছে। আমরা তার মোকাবিলা করব। বিজেপি ঘৃণা, সহিংসতা এবং সাম্প্রদায়িকতার রাজনীতিকে উৎসাহ দিচ্ছে।’   

তৃণমূলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায় বলেন, ‘তৃণমূলের রাজ্যসভার এমপিদের নিশানা করছে বিজেপি। ডেরেক ও ব্রায়েনের নেতৃত্বে এজন্য রাজ্যসভার চেয়ারম্যান তথা উপরাষ্ট্রপতির কাছে একটি প্রতিনিধিদল এই বিষয়ে সাক্ষাৎ করে অভিযোগ জানাবে।’

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বাড়িতে অনুষ্ঠিত কোর কমিটির বৈঠকে রাজনৈতিক উদ্দেশ্য চরিতার্থ করা জন্য কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থা সিবিআইকে ব্যবহার করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করেন মমতা।  এই বৈঠকে আসন্ন কোলকাতা পুরসভা নির্বাচনে দলের কর্মসূচি নিয়ে আলোচনা করা হয়। এছাড়া বনগাঁ লোকসভার উপনির্বাচনে বিরোধীদের কিভাবে মোকাবিলা করা হবে তা ঠিক করা হয়। বিশেষকরে হিন্দুত্ববাদী বিজেপিকে রুখে দেয়ার যাবতীয় কৌশল নির্ধারণ করা হয় এই বৈঠকে।

এদিনের বৈঠকে দলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক মুকুল রায় যাবেন না বলে খবর ছড়িয়েছিল। দলের সঙ্গে দূরত্ব সৃষ্টি, এমনকি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যের সঙ্গে মতবিরোধ সৃষ্টি হয়েছে বলেও কোনো  কোনো  সংবাদ মাধ্যমে ফলাও করে বলা হয়। যদিও আজকের এই বৈঠকে মুকুল রায় উপস্থিত হয়ে কার্যত যাবতীয় জল্পনার অবসান ঘটিয়েছেন।

Comments

comments