ব্রেকিং নিউজ

আবারও সাবমেরিন ক্যাবল কাটা পড়েছে, ইন্টারনেটে ধীরগতি

BSCCL_Detachedদ্য বিডি এক্সপ্রেসঃ এক সপ্তাহের ব্যবধানে আবারও সাবমেরিন ক্যাবল কাটা পড়েছে। গত সপ্তাহে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে এশিয়ার দ্রুতগতির ইন্টারনেট সংযোগ স্থাপনকারী সমুদ্রতলদেশীয় একটি ক্যাবল বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়।

এ কারণে গেল সপ্তাহে বাংলাদেশসহ দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার ইন্টারনেট সেবায় ধীরগতি দেখা দিয়েছিল। এরপর চলতি সপ্তাহে ভারতের মুম্বাই ও চেন্নাইয়ের মাঝামাঝি স্থানে সাবমেরিন ক্যাবল সি-মি-উই-ফোরের রিপিটারে এ সমস্যা দেখা দিয়েছে। ফলে শনিবার থেকে বাংলাদেশে ইন্টারনেট যোগাযোগ বিঘ্নিত হচ্ছে।

এ ব্যাপারে বাংলাদেশ সাবমেরিন ক্যাবল কোম্পানি লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মনোয়ার হোসেন বলেছেন, সাবমেরিন ক্যাবল কাটা পড়ার কারণে ইন্টারনেটে ধীরগতি লক্ষ্য করা যাচ্ছে। সমস্যা সমাধানে কিছুদিন সময় লাগবে, স্বাভাবিক গতি পেতে ছয় থেকে সাত দিন লেগে যেতে পারে বলেও তিনি জানান। মনোয়ার হোসেন জানান, সাবমেরিন ক্যাবলের ‘ওয়েস্ট সেগমেন্টে’ ব্যান্ডউইথ সরবরাহে সমস্যা হওয়ায় ‘ইস্ট সেগমেন্ট’ দিয়ে ব্যাকআপ দেওয়া হচ্ছে। এ ছাড়া ছয়টি ইন্টারন্যাশনাল টেরিস্ট্রিয়াল কেবল (আইটিসি) দিয়ে বাংলাদেশ ইন্টারনেটে যুক্ত থাকছে। তবে শুধু সাবমেরিন ক্যাবল নয়, আইটিসির মাধ্যমে যারা ব্যান্ডউইথ নিচ্ছেন তারাও ধীরগতির সমস্যায় ভুগছেন।

এ প্রসঙ্গে আইটিসি কোম্পানি ফাইবার অ্যাট হোম লিমিটেডের মুখপাত্র আব্বাস ফারুক বলেন, আইটিসিগুলো একাধিক সাবমেরিন ক্যাবলে যুক্ত। আইটিসির মাধ্যমে যারা ব্যান্ডউইথ নিচ্ছেন তারাও সামান্য ধীরগতির সমস্যায় রয়েছেন। এর আগে গত সপ্তাহে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে এশিয়ার দ্রুতগতির ইন্টারনেট সংযোগ স্থাপনকারী সমুদ্রতলদেশীয় একটি ক্যাবল বিচ্ছিন্ন হলে বাংলাদেশসহ দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার ইন্টারনেট সেবায় ধীরগতি দেখা দেয়। এ বিষয়ে ভিয়েতনামের শীর্ষ মোবাইল সার্ভিস অপারেটর ভিয়েটেল মোবাইল গত বুধবার এক বিবৃতিতে জানায়, ২০ হাজার কিলোমিটার দীর্ঘ এ ক্যাবল ভিয়েতনাম অংশে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে।

বর্তমানে ক্যাবলটির মেরামতকাজ চলছে, যা স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরতে তিন সপ্তাহ থেকে এক মাস লাগতে পারে। এছাড়া আবহাওয়া পরিস্থিতির ওপরও মেরামতকাজ নির্ভর করছে। সেটি এখনও মেরামতের কাজ চলছে। এদিকে ভিয়েতনামের সামরিক বাহিনী পরিচালিত ভিয়েটেল জানায়, ক্যাবল বিচ্ছিন্ন হয়ে যাওয়ার কারণ উদ্ঘাটন করা সম্ভব হয়নি। অন্য ক্যাবল নেটওয়ার্ক ব্যবহার করে বর্তমানে তারা আন্তর্জাতিক ইন্টারনেট ট্রাফিক নিয়ন্ত্রণ করছে। ক্যাবলটি মেরামত না হওয়া অবধি ভিয়েতনাম, হংকং, সিঙ্গাপুর ও জাপানে ইন্টারনেট সেবায় শ্লথগতি বিরাজ করবে। এর প্রভাব বাংলাদেশ-ভারত পর্যন্তও পড়েছে।

Comments

comments