ব্রেকিং নিউজ

পুঁজিবাজারে দরপতন অব্যাহত

_thereport24দ্য বিডি এক্সপ্রেসঃ রাজনৈতিক অস্থিরতায় পুঁজিবাজারে ব্যাপকভাবে দরপতন হয়েছে। গত দুই কার্যদিবসে ডিএসইতে সূচক কমেছে ৯০ পয়েন্ট। এছাড়া লেনদেনও নেমে এসেছে তিনশ’ কোটি টাকার নিচে।
 সোমবার নতুন তালিকাভুক্ত কোম্পানি ন্যাশনাল ফিডস মিলের লেনদেনের ফলে লেনদেন কিছুটা বাড়লেও মোট লেনদেনও এখনও আশানুরূপ নয়।
তথ্যে দেখা গেছে, ডিএসই’র ব্রড ইনডেক্স (ডিএসইএক্স) ৫০ পয়েন্ট কমে ৪ হাজার ৮৬৭ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। আর ডিএস-৩০ মূল্য সূচক ১৭ পয়েন্ট কমে ১ হাজার ৮০৩ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে।
 ডিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ২৮৫ কোটি ১৪ লাখ টাকা। যা আগের দিনের চেয়ে ৩৩ কোটি ৬৯ লাখ টাকা বেশি।
লেনদেনকৃত ৩০৪টি কোম্পানির মধ্যে দাম বেড়েছে ৪৩টির, কমেছে ২৩৯টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২২টি কোম্পানির শেয়ারের।
অপরদিকে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক মূল্য সূচক আগের দিনের চেয়ে ১৫৩ পয়েন্ট কমে ১৪ হাজার ৯২৭ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে।
লেনদেন হয়েছে ২৮ কোটি ৬৭ লাখ টাকা। লেনদেনকৃত ২৪২টি কোমপানির মধ্যে দাম বেড়েছে ২৭টির কমেছে ১৯২টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৩টি কোম্পানির শেয়ারের।
এদিকে বিবিধ খাতের ন্যাশনাল ফিড মিলসের শেয়ারদর লেনদেনের প্রথম কার্যদিবসে ৩২ টাকা বা ৩২৩ শতাংশ বেড়েছে।
নতুন তালিকাভুক্ত এ কোম্পানির প্রথম লেনদেনের দিনে শেয়ারদর ৪৪ টাকা থেকে ৪৯ টাকায় ওঠানামা করে। সর্বশেষ লেনদেন হয়েছে ৪২ দশমিক ৩০ টাকায়।
একদিনে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি দর বেড়েছে ৩২ দশমিক ৩০ টাকা। লেনদেন হয়েছে ৩৬ কোটি ১৩ লাখ ৯০ হাজার টাকার শেয়ার।
শেয়ারবাজারে ন্যাশনাল ফিড মিলসের মোট ৫ কোটি ৮০ লাখ শেয়ার রয়েছে। এর মধ্যে উদ্যোক্তা পরিচালকদের কাছে রয়েছে ৫১ দশমিক ৭২ শতাংশ।
প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের কাছে ২০ দশমিক ৩৪ শতাংশ এবং সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে রয়েছে ২৭ দশমিক ৯৪ শতাংশ।
কোম্পানির অনুমোদিত মূলধন ২০০ কোটি টাকা এবং পরিশোধিত মূলধন ৫৮  কোটি ৮৯ লাখ টাকা। তৃতীয় প্রান্তিকে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ০.৫৬ টাকা। যা আগের বছর একই সময়ে হয়েছিল ০.৪৯ টাকা।

রাজনৈতিক অস্থিরতায় পুঁজিবাজারে ব্যাপকভাবে দরপতন হয়েছে। গত দুই কার্যদিবসে ডিএসইতে সূচক কমেছে ৯০ পয়েন্ট। এছাড়া লেনদেনও নেমে এসেছে তিনশ’ কোটি টাকার নিচে।
 সোমবার নতুন তালিকাভুক্ত কোম্পানি ন্যাশনাল ফিডস মিলের লেনদেনের ফলে লেনদেন কিছুটা বাড়লেও মোট লেনদেনও এখনও আশানুরূপ নয়।
তথ্যে দেখা গেছে, ডিএসই’র ব্রড ইনডেক্স (ডিএসইএক্স) ৫০ পয়েন্ট কমে ৪ হাজার ৮৬৭ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। আর ডিএস-৩০ মূল্য সূচক ১৭ পয়েন্ট কমে ১ হাজার ৮০৩ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে।
 ডিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ২৮৫ কোটি ১৪ লাখ টাকা। যা আগের দিনের চেয়ে ৩৩ কোটি ৬৯ লাখ টাকা বেশি।
লেনদেনকৃত ৩০৪টি কোম্পানির মধ্যে দাম বেড়েছে ৪৩টির, কমেছে ২৩৯টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২২টি কোম্পানির শেয়ারের।
অপরদিকে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক মূল্য সূচক আগের দিনের চেয়ে ১৫৩ পয়েন্ট কমে ১৪ হাজার ৯২৭ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে।
লেনদেন হয়েছে ২৮ কোটি ৬৭ লাখ টাকা। লেনদেনকৃত ২৪২টি কোমপানির মধ্যে দাম বেড়েছে ২৭টির কমেছে ১৯২টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৩টি কোম্পানির শেয়ারের।
এদিকে বিবিধ খাতের ন্যাশনাল ফিড মিলসের শেয়ারদর লেনদেনের প্রথম কার্যদিবসে ৩২ টাকা বা ৩২৩ শতাংশ বেড়েছে।
নতুন তালিকাভুক্ত এ কোম্পানির প্রথম লেনদেনের দিনে শেয়ারদর ৪৪ টাকা থেকে ৪৯ টাকায় ওঠানামা করে। সর্বশেষ লেনদেন হয়েছে ৪২ দশমিক ৩০ টাকায়।
একদিনে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি দর বেড়েছে ৩২ দশমিক ৩০ টাকা। লেনদেন হয়েছে ৩৬ কোটি ১৩ লাখ ৯০ হাজার টাকার শেয়ার।
শেয়ারবাজারে ন্যাশনাল ফিড মিলসের মোট ৫ কোটি ৮০ লাখ শেয়ার রয়েছে। এর মধ্যে উদ্যোক্তা পরিচালকদের কাছে রয়েছে ৫১ দশমিক ৭২ শতাংশ।
প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের কাছে ২০ দশমিক ৩৪ শতাংশ এবং সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে রয়েছে ২৭ দশমিক ৯৪ শতাংশ।
কোম্পানির অনুমোদিত মূলধন ২০০ কোটি টাকা এবং পরিশোধিত মূলধন ৫৮  কোটি ৮৯ লাখ টাকা। তৃতীয় প্রান্তিকে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ০.৫৬ টাকা। যা আগের বছর একই সময়ে হয়েছিল ০.৪৯ টাকা।

রাজনৈতিক অস্থিরতায় পুঁজিবাজারে ব্যাপকভাবে দরপতন হয়েছে। গত দুই কার্যদিবসে ডিএসইতে সূচক কমেছে ৯০ পয়েন্ট। এছাড়া লেনদেনও নেমে এসেছে তিনশ’ কোটি টাকার নিচে।
 সোমবার নতুন তালিকাভুক্ত কোম্পানি ন্যাশনাল ফিডস মিলের লেনদেনের ফলে লেনদেন কিছুটা বাড়লেও মোট লেনদেনও এখনও আশানুরূপ নয়।
তথ্যে দেখা গেছে, ডিএসই’র ব্রড ইনডেক্স (ডিএসইএক্স) ৫০ পয়েন্ট কমে ৪ হাজার ৮৬৭ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে। আর ডিএস-৩০ মূল্য সূচক ১৭ পয়েন্ট কমে ১ হাজার ৮০৩ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে।
 ডিএসইতে মোট লেনদেন হয়েছে ২৮৫ কোটি ১৪ লাখ টাকা। যা আগের দিনের চেয়ে ৩৩ কোটি ৬৯ লাখ টাকা বেশি।
লেনদেনকৃত ৩০৪টি কোম্পানির মধ্যে দাম বেড়েছে ৪৩টির, কমেছে ২৩৯টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২২টি কোম্পানির শেয়ারের।
অপরদিকে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক মূল্য সূচক আগের দিনের চেয়ে ১৫৩ পয়েন্ট কমে ১৪ হাজার ৯২৭ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে।
লেনদেন হয়েছে ২৮ কোটি ৬৭ লাখ টাকা। লেনদেনকৃত ২৪২টি কোমপানির মধ্যে দাম বেড়েছে ২৭টির কমেছে ১৯২টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২৩টি কোম্পানির শেয়ারের।
এদিকে বিবিধ খাতের ন্যাশনাল ফিড মিলসের শেয়ারদর লেনদেনের প্রথম কার্যদিবসে ৩২ টাকা বা ৩২৩ শতাংশ বেড়েছে।
নতুন তালিকাভুক্ত এ কোম্পানির প্রথম লেনদেনের দিনে শেয়ারদর ৪৪ টাকা থেকে ৪৯ টাকায় ওঠানামা করে। সর্বশেষ লেনদেন হয়েছে ৪২ দশমিক ৩০ টাকায়।
একদিনে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি দর বেড়েছে ৩২ দশমিক ৩০ টাকা। লেনদেন হয়েছে ৩৬ কোটি ১৩ লাখ ৯০ হাজার টাকার শেয়ার।
শেয়ারবাজারে ন্যাশনাল ফিড মিলসের মোট ৫ কোটি ৮০ লাখ শেয়ার রয়েছে। এর মধ্যে উদ্যোক্তা পরিচালকদের কাছে রয়েছে ৫১ দশমিক ৭২ শতাংশ।
প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের কাছে ২০ দশমিক ৩৪ শতাংশ এবং সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছে রয়েছে ২৭ দশমিক ৯৪ শতাংশ।
কোম্পানির অনুমোদিত মূলধন ২০০ কোটি টাকা এবং পরিশোধিত মূলধন ৫৮  কোটি ৮৯ লাখ টাকা। তৃতীয় প্রান্তিকে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ০.৫৬ টাকা। যা আগের বছর একই সময়ে হয়েছিল ০.৪৯ টাকা।

Comments

comments