ব্রেকিং নিউজ

শীতের সঙ্গী মাফলার

White-Lotus-Women-Mufflers_6362656f9126dfbd01bf96aeba9acb3f_images_1080_1440_miniদ্য বিডি এক্সপ্রেসঃ প্রকৃতির কনকনে ঠান্ডা থেকে বাঁচতে অন্যান্য শীত পোশাকের পাশাপাশি মাফলারও এক অপরিহার্য পরিধেয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। পাশাপাশি তারুণ্যের ফ্যাশন ভাবনায় আকর্ষণীয় অনুষঙ্গও। সময়ের পরিবর্তনে বাজারে রয়েছে নিত্যনতুন মাফলারের সমাহার। শীতে উষ্ণতার পাশাপাশি স্টাইল স্টেটমেন্টে তাল মেলাতে মাফলার জনপ্রিয়। জিন্স, টি-শার্ট, ফতুয়া, শার্ট, জ্যাকেট অথবা কোটÑ সবকিছুতেই চমৎকারভাবে মানিয়ে যায় ফ্যাশনের নতুন এ অনুষঙ্গটি। এখন তো ছেলেমেয়ে সবাই পরেন মাফলার। তাই এর রঙ আর নকশায়ও দেখা যাচ্ছে বৈচিত্র্য। ফ্যাশন হাউস কাপড়-ই-বাংলার স্বত্বাধিকারী মুরসালিন বিথুন বলেন, শীতের সময় মাফলারের চাহিদা তো থাকেই। আজকাল আবার অনেকে শীত ছাড়াও শুধু ফ্যাশনের জন্য মাফলার বেছে নেন। মাফলারে আমরা নানা ধরনের স্টাইল করার চেষ্টা করছি। মাফলারের রঙঢঙ বাজারে লং এবং শর্ট দু’রকম মাফলার পাওয়া যায়। মেয়েদের মাফলারগুলো একটু শর্ট হয়। ভারি শীতে পরার জন্য উলের মাফলারগুলো উপযোগী। উলের নেট নকশার মধ্যে অনেক রঙের মাফলার পাওয়া যায়। কোনো কোনো মাফলার পাওয়া যাবে উলের মধ্যে টাইডাই করা। এসব মাফলার ছেলেমেয়ে সবাই ব্যবহার করতে পারবে। তবে লেইস দেয়া মাফলারগুলো মেয়েদের জন্যই উপযোগী। বাজারে খাদি কাপড়ের মাফলারও বেশ জনপ্রিয়। খাদি কাপড়ের মাফলারের ওপরে আবার আছে নানা ধরনের ছাপা নকশা। কোনো কোনো মাফলারে দেখা গেল খনার বচন বা কবিদের পঙ্ক্তি দিয়ে নকশা করা। চরকায় কাটা সুতায় তৈরি মাফলার মিলবে কোনো কোনো দোকানে। আছে নিট কাপড়ে তৈরি মাফলারও। এক রঙের মাফলার ছাড়াও বিভিন্ন চেকের মাফলার পাওয়া যাচ্ছে। ছোট-বড় চেকের আফগানি রুমাল হিসেবে পরিচিত স্কার্ফের মতো প্যাঁচানো রুমাল বা মাফলার আছে। সাধারণ মাফলার ছাড়াও মেয়েদের জন্য আছে ভিন্ন ধরনের মাফলারও। উলের ও মখমলের এসব মাফলারে মাথার দিকটায় টুপির মতো করে এর সঙ্গে দুই দিকে বাড়তি কাপড় দেওয়া। শুধু গলায় প্যাঁচানোর জন্য আছে চিকন মাফলার। পশমি মাফলারসহ বুটিক শপগুলতে পাওয়া যাচ্ছে ব্লক ও হাতের কাজের দৃষ্টিনন্দন মাফলার। কীভাবে পরবেন নানা রঙের মাফলার পরতে পারেন নানা ঢঙে। বুয়েটের শিক্ষার্থী আনিশা সাবা বিভিন্ন ধাঁচের মাফলার পরেন। কোট বা ব্লেজারের সঙ্গে গলায় একটা গিঁট দিয়ে পরতে যেমন পছন্দ করেন, তেমনি সোয়েটারের সঙ্গে গলায় একটা প্যাঁচ দিয়ে দুই পাশে ঝুলিয়েও রাখেন। আপনিও আপনার শীতের উষ্ণ সাজের সঙ্গে রঙ ও বৈচিত্র্যের ছোঁয়া আনতে পারেন নানা ঢঙের মাফলারের মাধ্যমে। সব সময় একভাবে পরতে হবে তা নয়। বদলে দিতে পারেন ফ্যাশনটা একটু অন্যরকমভাবে। কখনও গলায় দিতে পারেন একটাই গিঁট, কখনও বা এক প্যাঁচ দিয়ে দুই পাশে দিন ঝুলিয়ে। দরদাম একেক ধরনের মাফলারের দাম একেক রকম। স্কার্ফ জাতীয় মাফলারের দাম ৪০০ টাকার মধ্যে। উলের সাধারণ মাফলার মিলবে ১২০ থেকে ৩৫০ টাকার মধ্যে। এ ছাড়া নানা ধরনের লেখা সংবলিত মাফলার কেনা যাবে ২৫০ থেকে ৬২০ টাকার মধ্যে। খাদি বা অন্য কাপড়ের মাফলার পাবেন ১৮০ থেকে ৪৫০ টাকায়। এ ছাড়া মেয়েদের টুপিওয়ালা মাফলার মিলবে ৪০০ থেকে ৭০০ টাকায়। যেখানে পাবেন কাপড়-ই-বাংলা, নিত্য উপহারসহ রাজধানীর আজিজ সুপার মার্কেটে আছে বৈচিত্র্যময় মাফলার। এ ছাড়া ঢাকার নিউমার্কেট, নিউ সুপার মার্কেট, চন্দ্রিমা সুপার মার্কেট, বদরুদ্দোজা মার্কেট, এলিফ্যান্ট রোড, বঙ্গবাজার, ফার্মগেট, পল্টনসহ বিভিন্ন এলাকায় মিলবে মাফলার। পোশাকের ধরন বুঝে মাফলার জেন্টাল পার্কের ফ্যাশন ডিজাইনার আকাশ বলেন, মাফলার ব্যবহার করা উচিত পোশাকের রঙ ও ধরন বুঝে। এছাড়া বয়স, ব্যক্তিত্ব ও কাজের ক্ষেত্রে কিংবা কোনো অনুষ্ঠানের ধরন বুঝেও মাফলার ব্যবহার করা প্রয়োজন। এতে নিজের রুচি ও ব্যক্তিত্ব দুটোরই পরিচয় প্রকাশ পাবে। সবচেয়ে ভালো হয়, একাধিক পোশাকের সঙ্গে মানিয়ে একাধিক মাফলার ব্যবহার করা।

Comments

comments