ব্রেকিং নিউজ

উদ্ধারে ব্যর্থতার দায় অস্বীকার করলো ফায়ার সার্ভিস

২৭,ডিসেম্বরঃ কূপের ভেতর থেকে চার বছরের এক শিশুকে উদ্ধারে ব্যর্থতার অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেছেন বাংলাদেশের ফায়ার সার্ভিস্ এন্ড সিভিল ডিফেন্সের প্রধান ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আলী আহমেদ খান।

ঢাকার সাজাহানপুরে কয়েকশো ফুট গভীর কূপে পড়ে যাওয়া চার বছরের জিয়াদকে উদ্ধারে প্রায় ২৪ ঘন্টা ধরে চেষ্টা চলে। কিন্তু ফায়ার সার্ভিস এই উদ্ধার অভিযানে ব্যর্থ হয়ে সেখান থেকে চলে আসার পর স্থানীয় উদ্ধার কর্মীরা নিজেদের চেষ্টায় অল্প সময়ের মধ্যেই জিয়াদকে কূপ থেকে বের করে আনে।

কিন্তু জিয়াদের অচেতন দেহ হাসপাতালে নেয়ার পর ডাক্তাররা তাকে মৃত ঘোষণা করে।

ফায়ার সার্ভিসের প্রধান ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আলী আহমেদ খান বলেন, তারা উদ্ধার অভিযানের সমাপ্তি ঘোষণা করেছিলেন একথা সত্য নয়। যেহেতু ২৪ ঘন্টা পেরিয়ে গিয়েছিল, তাই তারা অভিযানটা সীমিত করে এনেছিলেন।

উল্লেখ্য ফায়ার সার্ভিসের উদ্ধার কর্মীরা এর আগে এই কূপের ভেতরে ক্যামেরা নামিয়ে শিশুটির কোন সন্ধান পাননি। সেখানে আদৌ শিশুটি আছে কীনা তা নিয়েও তারা সংশয় প্রকাশ করেন। কিন্তু শেষ পর্যন্ত সেই কূপের ভেতরেই যে শিশুটিকে পাওয়া গেল—এর ব্যাখ্যা কি? এ প্রশ্নের উত্তরে ফায়ার সার্ভিসের প্রধান বলেন, এটা সত্য যে তাদের ক্যামেরায় শিশুটির কোন ছবি আসেনি। তিনি বলেন, এটি ছিল একটি সাধারণ ছবি তোলার ক্যামেরা, কোন থার্মাল ইমেজ ক্যামেরা নয়।

তিনি আরও বলেন, তিনশো ফুট গভীরে একটি সংকীর্ণ জায়গা থেকে কাউকে উদ্ধারের চেষ্টার অভিজ্ঞতা দমকল বাহিনীর জন্য এটাই প্রথম। তিনি স্বীকার করেন যে, এরকম পরিস্থিতি থেকে কাউকে উদ্ধারের জন্য যে ধরণের আধুনিক যন্ত্রপাতি দরকার, তাদের সেসবের ঘাটতি রয়েছে।

Comments

comments