ব্রেকিং নিউজ

টমেটো সসের যত উপকার

20141214132259_jjjhবিডি এক্সপ্রেসঃ সারা বছরই সবজির তালিকায় বাজারে টমেটো থাকবেই। এটি কাঁচা কিংবা রান্না দুভাবেই খাওয়া যায়। আর জুস, কেচাপ, স্যুপ, সস এবং সালাদ করতেও টমেটোর জুড়ি মেলা ভার।

টমেটোর যে কোনো আইটেমই হোক না কেন এর মধ্যে বিভিন্ন ধরনের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা রয়েছে। জেনে নিন টমেটো সসের যত গুণ: কম ক্যালোরি থাকে টমেটো সস স্বাস্থ্যের জন্য অনেক বেশি উপকারী। কারণ এতে অন্যান্য মশলার তুলনায় অনেক কম ক্যালরির উপাদান থাকে।

প্রতিদিন ২ টেবিল চামচ টমেটো সস খেলে সপ্তাহে ১ হাজার ১৯০ ক্যালরি কমিয়ে আনা সম্ভব। ওজন কমাতেও কিন্তু খুব ভালোভাবেই কাজ করে এই টমেটো সস। চর্বির পরিমাণ কম প্রতিদিন এক টবিল চামচ টমেটো সস খেলে চর্বি ০.১ গ্রাম কমে আসে। একই সাথে খাবারটি হৃদরোগের জন্য ক্ষতিকারক চর্বির পরিমাণকেও কমিয়ে দেয়। শর্করা কম থাকে এতে শর্করার পরিমাণ অনেক কম থাকে। প্রত্যেকবার খাওয়ার সময় ৪ গ্রামেরও কম শর্করা পাওয়া যায়। ডায়েটে তাই শর্করার মাত্রা কম রাখতে এটি খাওয়ার কোনো বিকল্প নেই। উচ্চমাত্রার লাইকোপিন থাকে টমেটো সসে উচ্চমাত্রার লাইকোপিন থাকে। লাইকোপিন হলো এক প্রকার অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট যেটি শরীরের অন্তর্নিহিত কোষগুলোকে ক্ষতির হাত থেকে রক্ষা করতে সাহায্য করে।

একই সাথে এটি কোলেস্টেরলের মাত্রাকে উন্নীত করে এবং ক্যান্সার বিশেষ করে ফুসফুস, পাকস্থলী ও প্রোস্টেট ক্যান্সারের ঝুঁকি কমিয়ে দেয়। এছাড়া ভারি খাবারের পর একটু টমেটোর জুস খেলে তা হজমেও সহায়তা করে। ভিটামিন-এর ভালো উৎস টমেটো সসে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন-এ থাকে। শুধু চোখের জন্যই নয়, বরং চামড়া, হাড় ও দাঁতের গঠনেও কিন্তু ভালো কাজ করে ভিটামিন-এ। নিয়মিত টমেটো সস খেলে হজম প্রক্রিয়া ভালো থাকে। এটি কোষ্ঠকাঠিন্য ও ডায়রিয়া রোধ করে। এছাড়া জন্ডিস প্রতিরোধ করতেও সাহায্য করে টমেটো সস। তাই প্রতিদিনের খাদ্য তালিকতায় রাখুন এই টমেটো সস। তথ্যসূত্র: অ্যালিয়েন্স গ্লোবাল।

Comments

comments