ব্রেকিং নিউজ

ঝুঁকিপূর্ণ রাস্তা পারাপার

জীবনের ঝুঁকি নিয়ে রাস্তা পারাপার বন্ধে পুলিশ উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। গত মঙ্গলবার সকাল থেকে ফার্মগেইট-কাওরানবাজার-বাংলামটর-রূপসীবাংলা হোটেল এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালত অভিযান চালিয়ে ৩শ’ ৩১ জন পথচারীকে জরিমানা করেছে। সর্বনিম্ন ২০ টাকা থেকে ২শ’ টাকা পর্যন্ত জরিমানা করা হয়েছে। জরিমানা দিতে যারা ব্যর্থ হয়েছে তাদের বসিয়ে রাখা হয়েছে। কারাদ-ও দেয়া হয়েছে। পুলিশের পক্ষ থেকে সাংবাদিকদের জানানো হয়েছে, আইন অমান্য করে রাস্তা পারাপারের কারণে পথচারীদের ২৯০ ধারায় আর্থিক জরিমানা করা হয়েছে। প্রাসঙ্গিক আলোচনায় পত্রিকান্তরে প্রকাশিত এক রিপোর্টে বলা হয়েছে, রাজধানী ঢাকা পথচারীবান্ধব নয়। অবকাঠামোগত যেসব ব্যবস্থা রয়েছে সেগুলোর কোনটাই প্রকৌশলগত বা নগরবাসীর সঙ্গে মানানসই নয়। আন্তর্জাতিক রীতি মেনে সরকারের পরিবহন নীতিমালায় পথচারীকে অগ্রাধিকার দেয়া হলেও বিশেষজ্ঞরা বলছেন, নগরের যাতায়াত ব্যবস্থায় শৃঙ্খলা আনতে হলে তিনটি পদ্ধতি অনুসরণ করতে হবে। ১. প্রকৌশলগত সঠিকতা নিয়ে অবকাঠামো নির্মাণ ২. অবকাঠামো ব্যবহার ও এ সংক্রান্ত আইন সম্পর্কে মানুষকে শিক্ষিত করা ৩. আইন প্রয়োগ। ২০১৩ সালের পরিবহন নীতিমালায় পথচারীদের অগ্রাধিকার দিয়ে বলা হয়েছে, ফুটপাত দখলমুক্ত করা, প্রশস্ত ফুটপাত ও পথচারীবান্ধব সড়ক নির্মাণ, ফুটপাতের উন্নয়ন রক্ষণাবেক্ষণ ও পরিচ্ছন্নতা নিশ্চিত করা, শারীরিক বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন ব্যক্তিদের জন্য ফুটপাতে ঢালুপথ নির্মাণ, নিরাপদ পথ পারাপারে পথচারীদের সুরক্ষা, ট্রাফিক সংকেত বণ্টনে পথচারীদের অগ্রাধিকার দেয়া। একটি দৈনিকে প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ২০১১ সালে ওয়ার্ক ফর বেটার বাংলাদেশ ট্রাস্টের করা সমীক্ষায় দেখা গেছে, ঢাকার ৪৪ শতাংশ সড়কে ফুটপাত নেই। বিদ্যমান ফুটপাতের ৮২ শতাংশের অবস্থা করুণ। ৩১ শতাংশ ব্যবহারকারি বলছেন, তারা হাঁটতে গিয়ে আহত হয়েছেন। প্রকাশিত রিপোর্ট অনুযায়ী চলতি বছরে ঝুঁকিপূর্ণ রাস্তা পারাপারের কারণে নিহত হয়েছে ১শ’ ৩৪ জন।

Comments

comments