পি কে হালদারের সুন্দরী বান্ধবী কে এই অবন্তিকা?

অনলাইন ডেস্ক
প্রায় সাড়ে ৩ হাজার কোটি টাকা পাচারের অভিযোগ মাথায় নিয়ে বিদেশে পলাতক এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংকের সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রশান্ত কুমার হালদার ওরফে পি কে হালদারের বান্ধবী অবন্তিকা বড়ালকে তিন দিনের রিমান্ডে নেওয়া হয়েছে। 

তাকে টাকা পাচারের বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করছে দুদক। এর আগে গতকাল দুপুরে রাজধানীর ধানমন্ডি ১০ নম্বর সড়কের একটি বাসা থেকে পি কে হালদারের বান্ধবী অবন্তিকাকে গ্রেফতার করে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। দুদকের পরিচালক (জনসংযোগ) প্রণব কুমার ভট্টাচার্য্য বলেন, পি কে হালদারের অবৈধ সম্পদ অর্জন ও অর্থ পাচারের মামলার তদন্তে অবন্তিকার সম্পৃক্ততা পাওয়া গেছে।

এদিকে, অবন্তিকাকে গ্রেফতারের পর থেকে তাকে নিয়ে নানা কৌতূহল। পি কে হালদারের সঙ্গে কি তার সম্পর্ক। কে এই অবন্তিকা? গণমাধ্যমে প্রকাশিত বিভিন্ন খবর সূত্রে জানা গেছে, অবন্তিকা বড়াল পি কে হালদারের ঘনিষ্ঠ বান্ধবী। পি কে হালদারের কাছ থেকে তিনি অনেক সুবিধা নিয়েছেন। একইভাবে নিজের অবৈধ সম্পদ আড়াল করেছেন এই অবন্তিকার মাধ্যমে। পিকে হালদারের বাড়ি পিরোজপুর জেলার নাজিরপুরে। অবন্তিকা বড়ালের বাড়িও পিরোজপুরে। এলাকার মেয়ে হিসেবে পি কে হালদারের সঙ্গে তার পরিচয়। এক পর্যায়ে ঘনিষ্ঠতা হয়। 
তবে গত বুধবার দুদক থেকে আদালতে নেওয়ার সময় সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে অবন্তিকা বলেন, আমাকে কেন গ্রেফতার করা হয়েছে, সে বিষয়ে কিছুই জানি না। অবৈধ সম্পদ আছে কিনা, এ প্রশ্নের উত্তরে অবন্তিকা বলেন, এটা দুদক জানে, আমি বলতে পারব না। 

এর আগে, অবন্তিকাকে গ্রেফতারের পর প্রথমে সেগুনবাগিচায় দুদকের প্রধান কার্যালয়ের হাজতখানায় রাখা হয়। পরে তাকে আদালতে হাজির করেন তদন্ত কর্মকর্তা দুদকের উপপরিচালক মো. সালাউদ্দিন। পরে তাকে জজ আদালতে হাজির করে তিন দিনের রিমান্ডের আবেদন করলে ঢাকার জ্যেষ্ঠ বিশেষ জজ কে এম ইমরুল কায়েশ তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

উল্লেখ্য, প্রায় সাড়ে ৩ হাজার কোটি টাকা পাচারের অভিযোগ মাথায় নিয়ে বিদেশে পলাতক এনআরবি গ্লোবাল ব্যাংকের সাবেক ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) প্রশান্ত কুমার হালদার ওরফে পি কে হালদার ৬২ সহযোগীর মাধ্যমে অর্থ পাচার করেছেন বলে জানিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। 

হাজার কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ অনুসন্ধানে এখন পর্যন্ত পি কে হালদারের সঙ্গে সংশ্লিষ্টতায় এ ৬২ জনের নাম পেয়েছেন দুদকের অনুসন্ধান কর্মকর্তা। দুদক সচিব বলেন, আসলে পি কে হালদারের বিষয়টি এখন অনেক বড়। দেখা যাচ্ছে তার বিভিন্নজনের সঙ্গে সংশ্লিষ্টতা আছে। আমরা ইতিমধ্যে অনেককে জিজ্ঞাসাবাদ করেছি। মোটামুটি ৬২ ব্যক্তির সঙ্গে তার লিঙ্ক বা সংশ্লিষ্টতা পাওয়া যায়। যার মধ্যে একজন অবন্তিকা বড়াল।

Comments

comments