ব্রেকিং নিউজ

সাঈদ খোকনের দুই মামলার আদেশ ১৯ জানুয়ারি

প্রতিবেদক   
ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপসকে নিয়ে মানহানিকর বক্তব্য দেওয়ার অভিযোগে সাবেক মেয়র সাঈদ খোকনের বিরুদ্ধে দুই  মামলার আদেশের জন্য আগামী ১৯ জানুয়ারি ধার্য করেছেন আদালত।

আজ মঙ্গলবার (১২ জানুয়ারি) ঢাকা মহানগর হাকিম রাজেশ চৌধুরীর আদালত এই দিন ধার্য করেন। এদিন সাঈদ খোকনের বিরুদ্ধে পৃথক দুই মামলা গ্রহণের বিষয়ে আদেশের জন্য ধার্য ছিল। কিন্তু বিচারক আজ আদেশ না দিয়ে নতুন দিন ধার্য করেন।

গতকাল সোমবার (১১ জানুয়ারি) ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট রাজেশ চৌধুরীর আদালতে কাজী আনিসুর রহমান ও অ্যাডভোকেট মো. সারওয়ার আলম বাদী হয়ে মামলা দুটি করেন। আদালত দুই বাদীর জবানবন্দি গ্রহণ করেন। এরপর শুনানি শেষে আদালত আদেশের জন্য মঙ্গলবার ধার্য করেন।

মো. সারোয়ার আলম তাঁর মামলায় অভিযোগ করেন, সাঈদ খোকন গত শনিবার (৯ জানুয়ারি) জাতীয় ঈদগাহ গেইটের সামনে ফুলবাড়িয়া মার্কেট উচ্ছেদ হওয়া ব্যবসায়ীদের মানববন্ধন কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করে বলেন, 'তাপস ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণের পর থেকেই দুর্নীতির বিরুদ্ধে গলাবাজি করে চলেছেন, আমি তাঁকে বলব রাঘব বোয়ালের মুখে চুনোপুঁটির গল্প মানায় না। কেননা দুর্নীতিমুক্ত প্রশাসন গড়তে হলে সর্বপ্রথম তাঁর নিজেকে দুর্নীতিমুক্ত করতে হবে। তারপর চুনোপুঁটিদের দিকে দৃষ্টি দিতে হবে। অথচ তিনি উল্টো কাজ করছেন।'

খোকন আরো বলেন, 'দায়িত্ব গ্রহণের পর তাপস ডিএসসিসির শত শত কোটি টাকা তাঁর নিজ মালিকানাধীন মধুমতি ব্যাংকে স্থানান্তর করেছেন।' এই বক্তব্যের মাধ্যমে সাঈদ খোকন ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপসের মানহানি করে দণ্ডবিধি আইনের ৫০০ ধারায় শাস্তিযোগ্য অপরাধ করেছেন।

এর আগে গতকাল সোমবার সকাল ১১টার দিকে মানহানিকর বক্তব্য দেওয়ার অভিযোগে সাঈদ খোকনের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার হুঁশিয়ারি দেন তাপস। রাজধানীর গোপীবাগ এলাকার বক্স কালভার্ট থেকে ময়লা ও বর্জ্য অপসারণকাজ পরিদর্শনে এসে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তাপস বলেন, বিভিন্নভাবে যাঁরা টাকা লেনদেন করেছেন তাঁরাই উনার (সাঈদ খোকন) বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ করেছেন। এই অভিযোগ আমার নিজের নয়।

তাপস আরো বলেন, 'শনিবার মানববন্ধনে উনি যে বক্তব্য দিয়েছেন তা মানহানিকর। এমন বিষোদগার ব্যক্তিগত আক্রোশ। মানহানিকর বক্তব্য দেওয়ায় অবশ্যই উনার বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।'

Comments

comments