ব্রেকিং নিউজ

ট্রাম্পের অভিশংসন: ভোটের প্রস্তুতি ডেমোক্র্যাটদের

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
বিদায়ী প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সমর্থকদের গত সপ্তাহে মার্কিন গণতন্ত্রের প্রতীক বলে পরিচিত ক্যাপিটল হিলে হামলার জেরে ট্রাম্পকে অভিশংসনের দাবি উঠেছে। এ জন্য ভোটের প্রস্তুতি নিচ্ছেন ডেমোক্র্যাটরা। দেশটির হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভসের হুইপ জেমস ক্লাইবার্ন বিষয়টি নিয়ে আগামীকাল মঙ্গলবারের মধ্যেই ভোট হতে পারে বলে জানিয়েছেন। যদিও মার্কিন প্রেসিডেন্ট হিসেবে ট্রাম্পের শেষদিন ২০ জানুয়ারি।

যুক্তরাষ্ট্রের হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভসের হুইপ জেমস ক্লাইবার্ন জানিয়েছেন, প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পকে অভিশংসনের বিষয়ে একটি আর্টিকলের ওপর মঙ্গলবারের মধ্যেই হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভসে ভোট হতে পারে। ট্রাম্পের বিরুদ্ধে তার সমর্থকদের ‘অভ্যুত্থানে প্ররোচনা’ দেওয়ার অভিযোগ আনার পরিকল্পনা করছেন ডেমোক্র্যাটরা।

যদি অভিশংসন প্রক্রিয়া পরিকল্পনা মাফিক এগোয় তাহলে ট্রাম্প হবেন যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে দুবার অভিশংসন হওয়া একমাত্র প্রেসিডেন্ট। সে জন্য অভিশংসন অভিযোগ হাউসে ভোটে পাস হতে হবে। তারপর বিষয়টি সিনেটে তোলা যাবে। সিনেটে প্রেসিডেন্টকে অপসারণ করতে দুই-তৃতীয়াংশ ভোট লাগবে।

শুধু ডেমোক্র্যাট নয়, এমনকি রিপাবলিকানদের অনেকেই ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিরুদ্ধে সেদিন সমর্থকদের উসকে দেওয়ার অভিযোগ করছেন। রিপাবলিকান সিনেটর প্যাট টুমি ট্রাম্পের পদত্যাগ দাবি করেছেন। তিনি বলেন, আমার মনে হয় দেশের জন্য এখন সবচেয়ে ভালো হবে যদি ডোনাল্ড ট্রাম্প পদত্যাগ করে দ্রুত বিদায় নেন। আমি জানি তা হয়তো হবে না। কিন্তু এটা হলেই ভালো হতো। এর আগে আলাস্কার রিপাবলিকান সিনেটর লিসা মারকাউস্কি প্রথম ডোনাল্ড.ট্রাম্পের পদত্যাগ দাবি করেছিলেন। নেব্রাস্কার রিপাবলিকান সিনেটর বেন স্যাসেও ট্রাম্পের অভিশংসন নিয়ে কথা বলেন।

এ ছাড়া আরো এক রিপাবলিকান, ক্যালিফোর্নিয়ার সাবেক গভর্নর আর্নল্ড সোয়ার্জনেগার প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে `সবচেয়ে জঘন্য প্রেসিডেন্ট` হিসেবে উল্লেখ করেছেন। তবে অভিশংসনের অভিযোগ উঠলে রিপাবলিকানদের কেউ ট্রাম্পের বিরুদ্ধে ভোট দেবেন কি না তা কেউই নিশ্চিত করেননি।

Comments

comments