ঘূর্ণিঝড়ে ভোলা ও পিরোজপুরে ৩ জনের মৃত্যু

প্রতিবেদক:

ঘূর্ণিঝড় আম্পানে ভোলা ও পিরোজপুরে মোট তিনজন মারা গেছে। এর মধ্যে ভোলায় মারা গেছে দুজন আর পিরোজপুরে একজন।
প্রশাসন ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনী জানিয়েছে, এর মধ্যে ভোলার চরফ্যাশন উপজেলায় গাছচাপায় এক বৃদ্ধ এবং ইলিশায় নৌকা ডুবে এক জেলে মারা গেছে। আর পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলায় দেয়ালচাপায় এক ব্যক্তি মারা গেছে।

আমাদের ভোলা প্রতিনিধি আফজাল হোসেন জানিয়েছেন, ঘূর্ণিঝড় আম্পানের প্রভাবে ভোলার চরফ্যাশনে গাছের নিচে চাপা পড়ে সিদ্দিক ফকির (৭০) নামের এক বৃদ্ধ মারা গেছেন। এ ছাড়া ইলিশায় মেঘনা নদীতে নৌকা ডুবির পর এক জেলের লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।

এ ছাড়া ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় রয়েছে জেলার মনপুরা, তজুমদ্দিনের বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ। এদিকে সাইক্লোন শেল্টারে আশ্রয় নিয়েছে অন্তত লক্ষাধিক মানুষ।

গাছচাপায় বৃদ্ধের মারা যাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন চরফ্যাশনের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোহাম্মদ রুহুল আমিন। তিনি রাতে এনটিভি অনলাইনকে বলেন, ‘আজ বিকেলে উপজেলার চরমানিকা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।’

অপরদিকে রাত ১০টায় ইলিশা নৌপুলিশ ফাঁড়ির ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সুজন পাল এনটিভি অনলাইনকে বলেন, ‘লক্ষ্মীপুর থেকে নৌকায় করে জেলেরা ইলিশা আসছিল। এ সময় রামদাশপুর এলাকায় মেঘনা নদীতে নৌকাটি ডুবে যায়। পরে স্থানীয় জেলেরা একজনের লাশ উদ্ধার করে নিয়ে যায়।’

এদিকে বিকেলে স্থানীয় সংসদ সদস্য নুরুন্নবী চৌধুরী শাওন তজুমদ্দিনের ক্ষতিগ্রস্ত বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ দেখতে যান। তিনি সেখানে গিয়ে বাঁধ রক্ষায় জিও ব্যাগ ফেলার কাজ শুরু করেছেন। এ ছাড়া প্লাবিত হয়েছে জেলার অন্তত অর্ধশত গ্রাম।

এদিকে বার্তা সংস্থা ইউএনবির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, পিরোজপুরে ঘূর্ণিঝড় আম্পানের আঘাতে নিজের ঘরের পাকা দেয়াল ভেঙে চাপা পড়ে একজনের মৃত্যু হয়েছে।

নিহত ব্যক্তির নাম মজিবুর রহমান (৫৫)।

আজ বুধবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে মঠবাড়িয়া উপজেলার মঠবাড়িয়া কলেজের পেছনে এ ঘটনা ঘটে বলে জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোল্লা আজাদ হোসেন জানিয়েছেন।

Comments

comments