ব্রেকিং নিউজ

গাজীপুরে হাসপাতালের বিল শোধ করতে নবজাতক বিক্রি দম্পতির

প্রতিবেদক:

গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত উপ কমিশনার আবু লাইচ মোঃ ইলিয়াস জিকু জানান, গত ২১ এপ্রিল গাজীপুর মহানগরীর কোনাবাড়ি এলাকায় সেন্ট্রাল মেডিকেল হাসপাতালে জরুরী বিভাগের ভর্তি হন কেয়া খাতুন (২০)। ওই দিন সিজারিয়ানের মাধ্যমে তিনি একটি পুত্রসন্তান জন্ম দেন। এটি হচ্ছে কেয়া খাতুন ও শরীফ হোসেন দম্পতির প্রথম সন্তান। হাসপাতালে ১১ দিন ভর্তি থাকায় তার বিল আসে ৪৭ হাজার টাকা। হাসপাতালের এ বিপুর পরিমাণ বিল স্বামী মোঃ শরীফের পক্ষে পরিশোধ করা সম্ভব ছিল না। পরে মা কেয়া খাতুন ও তার স্বামী শরীফ হাসপাতালের বিল দিতে না পারায় নিজের সন্তানকে প্রতিবেশী এক নিঃসন্তান দম্পতির কাছে ২৫ হাজার টাকায় বিক্রি করে দেন। সন্তান বিক্রির টাকা দিয়ে তিনি হাসপাতারের বিলের আংশিক পরিশোধ করেন। শুক্রবার তারা সন্তানকে বিক্রি করে দিয়ে নগরীর কাশিমপুর এলাকার এনায়েতপুরে তাদের বাড়িতে চলে যান। পরে বিষয়টি পুলিশের এডিশনাল আইজির (এসবি) মাধ্যমে খবর পান গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার মোঃ আনোয়ার হোসেন। কমিশনার বিষয়টি দ্রুত ব্যবস্থা নেয়ার জন্য সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেন। পরে গাজীপুর মহানগর পুলিশ কমিশনার নিজেই হাসপাতালের বিল পরিশোধসহ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিয়ে ওই নবজাতক ছেলেটিকে তার মা-বাবার কোলে ফিরিয়ে দিয়ে মানবতার এক উজ্জল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেন। বর্তমানে মা এবং ছেলে এখন সুস্থ আছে।

Comments

comments