ব্রেকিং নিউজ

পরিবেশ দূষণকারীদের বিরুদ্ধে ২০ ডিসেম্বর থেকে অভিযান: ডিএনসিসি মেয়র

প্রতিবেদক:
ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেছেন, যারা সড়কে ইট, বালু, পাথর ও সিমেন্ট রেখে পরিবেশ দূষণ করছেন তাদের বিরুদ্ধে ২০ ডিসেম্বর থেকে অভিযান শুরু হবে। এখন থেকে পরিবেশ দূষণকারীদের জরিমানা করা হবে। গতকাল মঙ্গলবার জাতীয় প্রেস ক্লাবে ঢাকা ইউটিলিটি রিপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের (ডুরা) আয়োজনে ‘অনিয়ন্ত্রিত দূষণে ঢাকা : নাগরিক ভাবনা’ শীর্ষক গোলটেবিল বৈঠকে তিনি এসব কথা বলেন।
মেয়র বলেন, এসব অভিযান পরিচালনা করার জন্য আমরা সরকারের কাছে আরো ম্যাজিস্ট্রেট চেয়েছি। যারা পরিবেশ দূষণ করে বিভিন্ন ধরনের ব্যবসা করছেন তাদের বলতে চাই, আপনারা এমন ব্যবসা বন্ধ করেন। এছাড়া কমপ্লায়েন্স না মেনে উন্নয়ন কাজ করলেও তাকে জরিমানার আওতায় আনা হবে। যার যার দায়িত্ব যদি সঠিকভাবে আমরা পালন করি তাহলেই শহরটা আমরা নিরাপদ করতে পারি।

তিনি আরো বলেন, ‘রাজউক, ওয়াসাসহ সিটি করপোরেশনের কন্ট্রাক্টররা যারা রাস্তা খোঁড়ার কাজ করছেন তারা অবশ্যই কমপ্লায়েন্সের মাধ্যমে কাজ করুন, অন্যথায় জরিমানা করা হবে। যদিও আমাদের অনেক সীমাবদ্ধতা আছে, তা নিয়েই আমাদের এগিয়ে যেতে হবে। আনিসুল হক আমাদের তেমনটাই দেখিয়ে গেছেন। পরিবেশ দূষণ রোধ করতে হলে সবার সহযোগিতা প্রয়োজন। আমাদের ঢাকা সিটি এখন আর মেগা সিটি নেই, এখন এটা গ্যাগা সিটিতে পরিণত হয়েছে।’

অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপনা করেন ইনস্টিটিউট অব প্ল্যানার্সের সাধারণ সম্পাদক আদিলুর রহমান খান। তিনি তার বক্তব্যে বলেন, শব্দদূষণের প্রভাব সম্পর্কে অবগত হওয়ার সময় এসেছে। এই শহরে ৭০ শতাংশ মানুষ বিষণ্নতায় ভোগে। বিষণ্ন নগরী উন্নয়নের রোল মডেল হতে পারে না। পরিবেশ আগে না উন্নয়ন আগে—এই তর্ক এখন অহেতুক। পরিকল্পনার মধ্যে অনেক কিছু আছে কিন্তু বাস্তবায়ন নেই। আইন প্রয়োগের অভাব, রয়েছে সুশাসনের অভাব। সোশ্যাল ইমপ্যাক্ট অ্যাসেসমেন্ট করে উন্নয়ন ঘটাতে হবে।’ ডুরার সভাপতি মশিউর রহমান খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন ডুরার সাধারণ সম্পাদক তোফাজ্জল হোসেন রুবেল। এছাড়া স্থপতি ইকবাল হাবিব, নগর পরিকল্পনাবিদ অধ্যাপক ড. আকতার মাহমুদ, পরিবেশ বাঁচাও আন্দোলনের (পবা) চেয়ারম্যান আবু নাসের খান, জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ ডা. লেলিন চৌধুরী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

Comments

comments