ব্রেকিং নিউজ

অবৈধ সম্পদ ভোগ করতে দেওয়া হবে না: দুদক চেয়ারম্যান


প্রতিবেদক 
অবৈধ সম্পদ অর্জনকারীদের সুখে শান্তিতে সে সম্পদ ভোগ করতে দেওয়া হবে না উল্লেখ করে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ বলেছেন, ‘দেশের ভেতরে তো নয়ই, দেশের বাইরে পালিয়ে গেলেও দুদক তাদের তাড়া করবে।’

সোমবার দুদক কার্যালয়ের সামনে আন্তর্জাতিক দুর্নীতিবিরোধী দিবসের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘দুর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে হুঁশিয়ারি নয়, বার্তা আছে। দুর্নীতিবাজ কিংবা দুর্নীতিপরায়ণ ব্যক্তিরা দুর্নীতির মাধ্যমে যে সম্পদ গড়ে তোলেন তা আসলে তাদের সম্পদ নয়। এটা জনগণের সম্পদ। সেই জনগণের সম্পদ দেশে-বিদেশে যেখানেই থাকুক না কেন, আপনি সুখে তা ভোগ করবেন? সেই সুখে থাকার ব্যবস্থা আমরা রাখব না। আপনি যেখানেই থাকুন না কেন, সেই অবৈধ সম্পদ ভোগ করতে দেব না।’

সকালে পায়রা ও বেলুন উড়িয়ে দিবসটির উদ্বোধন ঘোষণা করেন দুদক চেয়ারম্যান। এ সময় দুদক কমিশনার এ এফ এম আমিনুল ইসলামসহ কমিশনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। এর আগে কমিশনের চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ কমিশনারকে সঙ্গে নিয়ে জাতীয় পতাকা এবং কমিশনের পতাকা উত্তোলন করেন।

ইকবাল মাহমুদ আরও বলেন, ‘দুর্নীতি শুধু বাংলাদেশের একক সমস্যা নয়, এটি বৈশ্বিক সমস্যা। বিভিন্ন গবেষণায় দেখা গেছে, এ জাতীয় সমস্যা একক দেশ বা একক প্রচেষ্টায় নির্মূল করা কঠিন। তাই দুর্নীতির বিরুদ্ধে সব শ্রেণি-পেশার মানুষকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। ছাত্র-শিক্ষক, বুদ্ধিজীবী, রাজনীতিবিদ, সরকার, মিডিয়াসহ সবার সমন্বিত ও পূর্ণ আন্তরিকতা নিয়ে দুর্নীতির বিরুদ্ধে লড়াই করতে হবে।

আন্তর্জাতিক দুর্নীতিবিরোধী দিবসের অনুষ্ঠান উদ্বোধনের পর রাজধানীর রমনা এলাকায় ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন কার্যালয়ের সামনের সড়কে দুর্নীতিবিরোধী মানববন্ধন করে দুদক।

অনুষ্ঠানে দুদক চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ বলেন, ‘মাত্র গুটি কয়েক মানুষের দুর্নীতির কাছে আমাদের পরাজয়ের কোনো সুযোগ নেই। এই লড়াইয়ে বিজয়ের কোনো বিকল্প নেই। ছাত্র-শিক্ষক, বুদ্ধিজীবী, সরকার, রাজনৈতিক দল, সামাজিক সংগঠন, আইনজীবী, মিডিয়া সবার সমন্বিত প্রচেষ্টায় দুর্নীতিবাজদের পরাভূত করা হবে। 

Comments

comments