ব্রেকিং নিউজ

সংসদে দাঁড়িয়ে ক্ষমা চাইলেন মসিউর রহমান রাঙ্গা

 

প্রতিবেদক:
স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলনে শহীদ নূর হোসেনকে নিয়ে কটূক্তি করায় তীব্র সমালোচনার মুখে নিজের ভুল স্বীকার করেছেন বিরোধীদলীয় চিফ হুইপ ও জাতীয় পার্টির মহাসচিব মসিউর রহমান রাঙ্গাঁ।

বুধবার সংসদে দাঁড়িয়ে নিঃশর্ত ক্ষমা চেয়েছেন তিনি। সংসদের বৈঠকে দাঁড়িয়ে কার্যপ্রণালি বিধির ২৭৪ বিধিতে (ব্যক্তিগত কৈফিয়ত) ফ্লোর নিয়ে বক্তব্য দেন রাঙ্গাঁ। যদিও তার বক্তব্যের শুরুতে একাধিক সাংসদকে হইচই করে প্রতিবাদ জানাতে দেখা গেছে।

এর আগে বিকেল সোয়া ৪টায় স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে সংসদের বৈঠক শুরু হয়।

গত ১০ নভেম্বর গণতন্ত্র দিবসে দলীয় এক আলোচনা সভায় জাপা মহাসচিব মসিউর রহমান রাঙ্গাঁ শহীদ নূর হোসেনের পাশাপাশি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়েও বিরূপ মন্তব্য করেন। এর পরিপ্রেক্ষিতে মঙ্গলবার সংসদের বৈঠকে সরকারি ও বিরোধী দলের একাধিক সদস্য রাঙ্গাঁর বক্তব্যের কঠোর সমালোচনা করেন।

এমন পরিস্থিতিতে বুদবার সংসদের বৈঠকে রাঙ্গাঁ বলেন, গত দু'দিন তিনি জ্বরে ভুগছিলেন। যে কারণে অধিবেশনে যোগ দিতে পারেননি। তিনি বলেন, আমি একটা ভুল করেছি। এজন্য সব দোষ আমার ঘাড়ে নিচ্ছি। এই সংসদে নিঃশর্ত ক্ষমা প্রার্থনা করছি।

বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে কোনো আপত্তিকর মন্তব্য করেননি দাবি করে রাঙ্গাঁ বলেন, প্রতিমন্ত্রী থাকতে তিনি এই সংসদে অনেক কথা বলেছেন। এই সংসদে দাঁড়িয়ে তিনি অজস্রবার জয় বাংলা বলেছেন; জাতির পিতা বলেছেন। জাতির পিতাকে নিয়ে কোনো রকম ভুল বলে থাকলে তার জন্য ক্ষমাপ্রার্থী।

প্রধানমন্ত্রীকে তিনি সন্ত্রাসবাদ-দুর্নীতিবাজ এগুলো বলেননি দাবি করে রাঙ্গাঁ বলেন, তার দল ক্ষমতায় এলেও তিনি মন্ত্রী হতে পারতেন না, প্রধানমন্ত্রী তাকে মন্ত্রী করেছেন। তারপরও ভুল করে থাকলে নিঃশর্ত ক্ষমা চাই। সহকর্মীরা আমাকে ক্ষমাসুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন।

রোববার রাজধানীর বনানীতে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান কার্যালয়ে মহানগর উত্তর শাখার উদ্যোগে ‘গণতন্ত্র দিবস’ উপলক্ষে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় নব্বইয়ের দশকের স্বৈরাচারবিরোধী গণতান্ত্রিক আন্দোলনের সময় নিহত শহীদ নূর হোসেনকে ‘অ্যাডিকটেড, ইয়াবাখোর’ বলে মন্তব্য করেন মশিউর রহমান রাঙ্গা।

ওইদিন তিনি বলেন, ‘হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ কাকে হত্যা করলেন। নূর হোসেন কে? নূর হোসেন কে? একটা অ্যাডিকটেড ছেলে। একটা ইয়াবাখোর, ফেন্সিডিলখোর।’

Comments

comments