সংবাদ সম্মেলনে মুখ খুললেন রিফাতের স্ত্রী মিন্নী


বরগুনা প্রতিনিধি
রোববার ১৪ জুলাই মিন্নীর নিজ বাসায় দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে রিফাত শরীফের স্ত্রী মিন্নী সংবাদ সম্মেলন করে বলেন  ১৩ জুলাই শনিবার আমার শশুর দুলাল শরিফ সংবাদ সম্মেলন করে (১০দফা উল্লেখ করে) আমার বিচারের দাবী করেন এবং তিনি বলেন রিফাত শরীফ হত্যার সাথে আমি জড়িত। প্রসঙ্গ গত ২৬ জুন ২০১৯ ইং তারিখ বরগুনা সরকারি কলেজের সামনে আমার স্বামী রিফাত শরীফকে নয়ন বন্ডসহ কতিপয় সন্ত্রাসীরা প্রকাশ্যে দিবালকে কুপিয়ে হত্যা করেন। সেই থেকে আমার স্বামী হত্যার বিচারের দাবীতে সারাদেশে মানববন্ধনসহ নানামুখী পদক্ষেপ নেন। প্রকাশ্যে দিবালকে হত্যার ভিডিও প্রকাশ পাইলে আমার স্বামীকে বাঁচানোর জন্য আমি যে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে অস্ত্রের মুখে প্রতিবাদ করেছি। তারপরেই সেই ভিডিও দেখে সারাদেশের মানুষ আমার সাহসের প্রসংশা করছেন। পরবর্তীতে আমার শ্বশুর নয়নবন্ডসহ মোট ১২ জনকে আসামি করে মামলা দায়েরে করেন। বরং আমি ঐ মামলার ১ নং স্বাক্ষী।
 মিন্নী সাংবাদিকদের বলেন আপনারা জানেন উক্ত নয়নবন্ড এলাকার মাদক সেবী এবং মাদক ব্যবসাসহ অনেক খারাপ কর্মকান্ডের সাথে জড়িত। নয়ন বন্ড বিভিন্ন অপকর্মের সাথে জড়িত থাকায় তার নামে অনেক মামলা রয়েছে। বর্তমানে আমার শ্বশুর অসুস্থ এবং তাহার একমাত্র সন্তানকে হারিয়ে আরোও অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। যখন যা বলেন তা কোনো কিছুই পড়ে মনে থাকেনা। উল্লেখ থাকে যে রিফাত হত্যার পরে আসামীরা বিচারকে অন্যদিকে প্রবাহিত করার জন্য সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে বিভিন্ন ভাবে আমাকে হয়রানি করার চেষ্টা করছেন। যেমন ফেসবুকে বিভিন্ন ছবি এডিট করে পোস্ট করিয়াছেন যাহা কখনই সত্য নয়।
আরো উল্লেখ যে ০০৭ নামের যে গ্রুপটি বরগুনায় যারা সৃষ্টি করেছেন তারা খুবই ক্ষমতাবান ও অর্থশালী তাই তারা এই বিচারের আওতা থেকে দূরে থাকার জন্য আমার শ্বশুরকে বিভিন্ন ভাবে চাপ সৃষ্টি করে আরিফাত বিচারকে অন্য দিকে প্রবাহিত করার জন্য গত ১৩-০৭- ২০১৯ ইং তারিখ রোজ শনিবার আপনাদের কাছে যে আমার বিরুদ্ধে সাংবাদিক সম্মেলন করেছেন তাহা সম্পুর্ন মনগড়া ও বানোয়াট। আমার শ্বশুেড়ের সকল বক্তব্যের আমি তিব্র প্রতিবাদ জানাই।

Comments

comments