ব্রেকিং নিউজ

জোর করে ক্ষমতা দখল করা যায়, দেশ শাসন করা যায়না- মির্জা ফখরুল


রিজু রেজওয়ান, ঠাকুরগাঁও   
বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম বলেছেন, এই অবৈধ সরকার সচেতন ভাবে জবরদস্তি ক্ষমতা আকড়ে ধরে আছে। তাদের প্রতি জনগণের মতামতের কোন প্রতিফলন নেই। কোন অধিকার নেই, বলার কিছু নেই, কারণ জনগণের ভোটের অধিকারকে  তারা ছিনতাই করেছে। এই একদলীয় শাসন ব্যবস্থার জন্য তথাকথিত নির্বাচনের নামে একটা প্রহসনের নির্বাচনকে সাজিয়েছিল। এই একই কারণে তারা ২০১৪ সালে একইভাবে নির্বাচন করে ক্ষমতা দখল করে নিয়েছিল। ১৫৪ জন প্রার্থীকে তারা বিনা প্রতিদ্বন্দিতায় জয়ী করেছিল। এবং সেই নির্বাচনে জনগণ ৫ শতাংশ ভোট দেয়নি। এবছর আমরা নির্বাচনে অংশ নিয়েছিলাম কিন্তু আবারো তারা নীলনক্সা করে ব্যালট ছিনতাই ও বন্দুক দেখিয়ে আমাদের বিজয়কে ডাকাতি করেছে। সরাসরি একদলীয় শাসন কায়েম করে বন্দুক আর ব্যালট ছিনতাই করে জোর করে ক্ষমতা দখল করা যায়। দেশ শাসন করা যায়না, জনগণের মন জয় করা যায়না।
মঙ্গলবার বিকাল সাড়ে ৫ টায় ঠাকুরগাঁও শহরের কালিবাড়িতে মির্জা রুহুল আমিন মিলনায়তনে সদর উপজেলা বিএনপি আয়োজিত কর্মীসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।
তিনি আরো বলেন, এ বছর ৩০ শে জানুয়ারির নির্বাচনে আওয়ামীলীগ ক্ষমতায় আসবার পর থেকেই অত্যন্ত পরিকল্পিত ভাবে একদলীয় শাসন ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠার জন্য আবার প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। এবং সেই কারণে তারা আগেই সংবিধানকে ক্যাপ্চার করে পরিবর্তন করেছে।
যেই মুহুর্তে দেশের জনগণের কাছে সুষ্ঠু নির্বাচন সম্পর্কে যে ধারণা ছিল, একটি কেয়ারটেকার সরকারের মাধ্যমে নির্বাচন হবে। সেই ব্যবস্থাকে তুলে দিয়ে এই ৩০ শে জানুয়ারির নির্বাচনের আগেই আওয়ামীলীগ দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন ব্যবস্থা সংবিধানে সংযোজন করেছে, এটা কখনো জনগণ মেনে নিবেনা।
কারণ একটি নিরোপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক নির্বাচন ব্যবস্থা ছাড়া কখনো সুষ্ঠু-স্বাভাবিক নির্বাচন হতে পারেনা। দলীয় সরকার কখনো বিরোধী দলগুলোকে সুযোগ দেবেনা। জনগণও তাদের অধিকার থেকে বঞ্চিত হবে।
অনুষ্ঠিত যৌথ কর্মী সভায় বক্তব্য রাখেন, সদর উপজেলা সভাপতি আনোয়ার হোসেন লাল, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল হামিদ, জেলা বিএনপি’র সভাপতি তৈমুর রহমান, মির্জা ফয়সল আমিন, সুলতানুল ফেরদৌস ন¤্র, আনছারুল ইসলাম, শরিফ আহমেদ প্রমুখ। এসময় উপস্থিত ছিলেন, জেলা যুবদল সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক, উপজেলা ছাত্রদল সভাপতি, সম্পাদকসহ সদর উপজেলার ছাত্রদল,যুবদল, কৃষকদলের বিভিন্ন স্তরের শত শত নেতারা।

 

Comments

comments