ব্রেকিং নিউজ

চট্টগ্রামে তামাক ব্যবহারের হার তুলনামূলক কম: অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার

প্রতিবেদক:

স্বাস্থ্যখাতের মত সেবাখাতে বিস্তর পরোক্ষ ধূমপানের শিকার হচ্ছেন সাধারণ মানুষ। সর্বস্তরের সম্মিলিত প্রচেষ্টার মাধ্যমে তাই এই খাতকে সম্পূর্ণ ধূমপানমুক্ত করা হবে। 

বৃহস্পতিবার,৪ এপ্রিল নগরীর বিভাগীয় কমিশনার কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে হোটেল-রেস্টুরেন্টে তামাক নিয়ন্ত্রণ আইন বাস্তবায়নে বেসামরিক বিমান ও পর্যটন মন্ত্রণালয় কর্তৃক প্রণীত গাইডলাইনের উপর এক ওরিয়েন্টশন সভায় এ প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন বক্তারা।  বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা ইপসা ও ঢাকা  আহ্ছানিয়া মিশন এর যৌথ আয়োজনে ওরিয়েন্টশন সভার প্রধান অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম বিভাগের অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (সার্বিক) শংকর রঞ্জন সাহা। তিনি বলেন, ‘দেশের অন্যান্য বিভাগের তুলনায় চট্টগ্রামে তামাক ব্যবহারের হার তুলনামূলক কম। হোটেল-রেস্টুরেন্টকে তামাক নিয়ন্ত্রণ আইন বাস্তবায়নে একটি সুনির্দিষ্ট কৌশলপত্র প্রণয়ন করেছে  বেসামরিক পর্যটন মন্ত্রণালয়। চট্টগ্রামের সকল  হোটেল- রেস্তোরাকে এই গাইডলাইন অনুসরণ করতে হবে।’ 

চট্টগ্রাম জেলার অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ মাশহুদুল কবির এর সভাপতিত্বে সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (উন্নয়ন) মো. নুরুল আলম নিজামী, স্থানীয় সরকার পরিচালক দীপক চক্রবর্ত্তী, সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মো. শামসুদ্দোহা, সিভিল সার্জন মো. আজিজুর রহমান সিদ্দিকী, ক্যাম্পেইন ফর ট্যোবাকো ফ্রি কিডস এর গ্র্যান্টস ম্যানেজার আবদুস সালাম।

সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ রেস্তোরা মালিক সমিতির সভাপতি ইলিয়াস আহমেদ ভুঁইয়া, সাধারন সম্পাদক সৈয়দ আবদুল হান্নান বাবু, চট্টগ্রাম আবাসিক হোটেল মালিক সমিতির সভাপতি হাবিবুর রহমান এবং চট্টগ্রামের বিভিন্ন স্থানের হোটেল- রেস্তোরার মালিকরা। নগরীর সমস্ত হোটেল রেস্টুরেন্টকে ধূমপান ও তামাকমুক্ত রাখার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন তারা। ঢাকা আহ্ছানিয়া মিশন প্রোগ্রাম অফিসার শারমিন রহমানের সঞ্চালনায় সভায় বিভিন্ন বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থার নেতৃবৃন্দও উপস্থিত ছিলেন। এ সময় পাওয়ার পয়েন্টে ‘হসপিটালিটি সেক্টরে তামাক নিয়ন্ত্রণ কৌশলপত্র বিষয়ক’ তথ্য চিত্র উপস্থাপন করেন ঢাকা আহ্ছানিয়া মিশন এর সহকারী পরিচালক ও তামাক নিয়ন্ত্রণ প্রোগ্রাম এর প্রকল্প সমন্বয়কারী মো. মোখলেছুর রহমান। সভার শুরুতে শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন ইপসার নির্বাহী পরিচালক নাছিম বানু।

Comments

comments