ব্রেকিং নিউজ

মালয়েশিয়ায় নির্বাচন, প্রধানমন্ত্রী হতে যাচ্ছেন মাহাথির

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :

মালয়েশিয়ার জাতীয় নির্বাচনে মাহাথির ম্যাজিকে কুপোকাত হতে যাচ্ছেন তার এক সময়ের মিত্র নাজিব রাজাক। চমক দেখাতে যাচ্ছেন ৯২ বছর বয়সী ড. মাহাথির মোহাম্মদ; ক্ষমতা গ্রহণের পথে অনেকটাই এগিয়ে গেছেন তিনি। বিবিসি, আলজাজিরা, সাউথ চায়না মর্নিং ও ইন্টারনেট।
মালয়েশিয়ার চতুর্দশ সাধারণ নির্বাচনে ড. মাহাথির ও আনোয়ার ইব্রাহিমের গড়া পাকাতান হারাপান (পিএইচ) বিপুলভাবে জয়লাভ করতে যাচ্ছে। সর্বশেষ প্রাপ্ত বেসরকারি ফল অনুযায়ী, পাকাতান ২২২ আসনের সংসদে ১২৬টি আসনে এরই মধ্যে জয় নিশ্চিত করেছে। আর নাজিব রাজাকের বারিসান ন্যাশনাল (বিএন) জয়ী হয়েছে ৮৬ আসনে। ইসলামী দল পেয়েছে ১০টি আসন। চূড়ান্ত ফলে এ সংখ্যাটি সামান্য হেরফের হতে পারে। ইতোমধ্যেই প্রধানমন্ত্রী হিসেবে মাহাথির মোহাম্মদকে এবং উপপ্রধানমন্ত্রী হিসেবে ডা. আজিজানকে সরকার গঠনের আহ্বান জানিয়েছেন মালয়েশিয়ার রাজা। এর আগে মাহাথির মোহাম্মদ তার জোটের ১১৬টিরও বেশি আসনে জয়ী হওয়ার তথ্য জানিয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছেন।
পিএইচের প্রধান মাহাথির মোহাম্মদ, পিকেআর প্রধান ডা. আজিজান, ভাইস প্রেসিডেন্ট নূরুল ইজ্জাহ আনোয়ার, সাবেক উপপ্রধানমন্ত্রী মহিউদ্দিন ইয়াসিন, আমানহ প্রধান মোহাম্মদ সাবুসহ অধিকাংশ নেতাই বড় ব্যবধানে জয়ী হয়েছেন। অন্যদিকে প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাক এবং উপপ্রধানমন্ত্রী আহমদ জায়েদি হামেদি জয়লাভ করলেও শাসক জোটের অনেক নেতা ও মন্ত্রীরই ভরাডুবি হয়েছে।
বেসরকারি সূত্রে প্রাপ্ত তথ্যানুযায়ী, বিরোধী পিএইচ সেলাঙ্গর, জহুর, পেরাক, পেনাং, কেদাহ, মালাক্কা, নেগেরি সেম্বিলানে সরকার গঠন করবে। বারিসান পাহাঙ পারলিস এবং তেরাঙ্গানুতে নিশ্চিতভাবে সরকার গঠন করতে পারে। পাস কেলাস্তানে সরকার গঠন করতে পারে।
গতরাতে সর্বশেষ প্রাপ্ত খবর অনুসারে, সেনাবাহিনী প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাকের সরকারি বাসভবনে অবস্থান নিয়েছে।
মালয়েশিয়ার ১৪তম সংসদ নির্বাচনে গতকাল বুধবার ৮ হাজার ২৫৩টি কেন্দ্রে স্থানীয় সময় সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত বিরতিহীনভাবে ভোটগ্রহণ চলে। এ সময়ের মধ্যে ৭০ শতাংশ ভোট পড়েছে বলে স্থানীয় সংবাদমাধ্যমগুলো জানিয়েছে। ভোটগ্রহণ সম্পন্ন হওয়ার পরই ভোট গণনাও শুরু হয়। এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত গণনা চলছিল।
এবারের নির্বাচনে মূল আকর্ষণ মাহাথির মোহাম্মদ। ৯২ বছর বয়সী তিনি এক সময়ের মিত্র নাজিব রাজাককে কঠিন চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়েছিলেন। বলা যায়, মাহাথিরের কারণে নির্বাচন অনেক কঠিন হয়ে গেছে নাজিবের জন্য। এ ছাড়া আরেক বিরোধী নেতা আনোয়ার ইব্রাহিমও মাহাথিরের সঙ্গে জোট বেঁধেছেন। আর নাজিবের ভরসা শুধু সংখ্যাগরিষ্ঠ মুসলিম মালয়রা। এরা মোট জনসংখ্যার ৬০ শতাংশ। তবে এই মালয়রাও সবাই নাজিবের প্রতি তুষ্ট, তা বলা যাবে না। সম্প্রতি সরকারের কিছু সিদ্ধান্তে বিপাকে পড়েছে সে দেশের নিম্ন আয়ের মানুষ। এ ছাড়া নাজিবের বিরুদ্ধে রয়েছে দুর্নীতির অভিযোগ। ভোট দেওয়ার সময় এসব বিষয় ভোটাররা কতটা মনে রেখেছেন, তার প্রতিফলন দেখা যাবে ফলে।
মালয়েশিয়ায় ২০১৩ সালের নির্বাচনে ৮০ শতাংশ ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেছিল। সেই তুলনায় এবারের প্রদত্ত ভোটের হার কম।
প্রসঙ্গত মালয়েশিয়ার পার্লামেন্টে ২২২ আসনে নির্বাচনের মাধ্যমে সাংসদ নির্বাচিত হয়ে থাকেন। অবশিষ্ট ১৩ আসনে সংসদীয় প্রতিনিধিদের নিয়োগ দেওয়া হয়।

Comments

comments