গোপালগঞ্জের শিক্ষা উপকরন বিতরন

প্রতিবেদক :

গোপালগঞ্জ জেলার টুঙ্গিপাড়া উপজেলায় সরকারি শেখ মুজিবুর রহমান বিশ্ববিদ্যালয় কলেজে মাল্টিমিডিয়া ক্লাসের জন্য শিক্ষা অনুদান হিসাবে শিক্ষা উপকর বিতরন করেছে বুরো বাংলাদেশ নামে একটি এনজিও।

সোমবার সকাল ১১টায় টুঙ্গিপাড়াস্থ সরকারি শেখ মুজিবুর রহমান বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের অধ্যক্ষ সেক আব্দুল মালেকের কাছে  ১টি ল্যাপটপ, ১টি মাল্টিমিডিয়া প্রোজেক্টর হস্তান্তর করেন বুরো বাংলাদেশের বিভাগীয় ব্যবস্থাপক ইস্তাক আহম্মেদ।

এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বুরো বাংলাদেশের ফরিদপুরের আঞ্চলিক ব্যবস্থাপক মোঃ রিয়াজ উদ্দিন, বুরো বাংলাদেশের এলাকা ব্যবস্থাপক মোঃ মিজানুর রহমান, বুরো বাংলাদেশের শাখা ব্যবস্থাপক খান আহম্মেদ শরীফ, কলেজের উপাধ্যক্ষ শংকর কুমার হীরা, প্রফেসর রসময় হালদারসহ কলেজের সকল শিক্ষক ও ছাত্র-ছাত্রী বৃন্দ।

গোপালগঞ্জে সংঘর্ষে আহত ব্যক্তির মৃত্যু

গোপালগঞ্জে প্রতিপক্ষের হামলায় ইউনুস সিকদার (৫০) নামে এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। রবিবার দিবাগত রাত ১২টার দিকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। তিনি গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার জালালাবাদ ইউনিয়নের পাঁচুড়িয়া গ্রামের বাসিন্দা।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, গত ৬ ফেব্রুয়ারি সকালে ওই গ্রামের ইউনুস সিকদারের ভাতিজা ও আজিবর সিকদারের ছেলে দলিল সিকদারের (২১) সঙ্গে একই গ্রামের তবি শেখের ছেলে ইউসুফ শেখের (২২) গন্ডগোল লাগে। এলাকার নেতৃত্ব দেওয়াকে কেন্দ্র করে মোবাইল ফোনে কথা কাটাকাটি ও হুমকি ধামকির ঘটনা ঘটে। এ সময় একে অপরকে দেখে নেয়ারও হুমকি দেন তারা। পরে দুপুর দেড়টার দিকে ইউসুফ শেখের লোকজন রামদা ও দেশীয় অস্ত্র নিয়ে ইউনুস সিকদারের বাড়িতে হামলা চালায়। এ সময় বাড়িতে থাকা ইউনুস সিকদার ও দলিল সিকদারকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে মারাত্মক আহত করে চলে যায় তারা। এ সময় বেশ কিছু বাড়ি-ঘরে হামলা-ভাংচুর চালানো হয়।

আহতদের প্রথমে গোপালগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। কিন্তু ইউনুস সিকদারের অবস্থা মারত্বক হওয়ায় তাকে খুলনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। সেখান থেকে চিকিৎসকরা পরের দিন (৭ ফেব্রুয়ারি) তাকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠান। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রবিবার (১১ ফেব্রুয়ারি) রাত ১২টার দিকে তার মৃত্যু হয়। এছাড়াও আহত দলিল সিকদার গোপালগঞ্জ সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

গোপালগঞ্জ সদর থানার গোপীনাথপুর পুলিশ ফাঁড়ির উপ পরিদর্শক মোঃ সাইফুল জানান, এ ঘটনায় শনিবার (১০ ফেব্রুয়ারি) ২৪ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত আরও ১৫ জনের বিরুদ্ধে গোপালগঞ্জ সদর থানায় মামলা হয়েছে। মামলার তদন্ত চলছে। এরই মধ্যে একজন মারা গেছেন। এ ঘটনায় এলাকায় থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে।

গোপালগঞ্জ সদর থানার পুলিশ পরিদর্শক মোঃ সেলিম রেজা বলেন, এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এক পক্ষ পলাতক রয়েছে। আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

Comments

comments