ব্রেকিং নিউজ

রাশিয়া-পাকিস্তান কৌশলগত অংশীদারিত্ব দক্ষিণ এশিয়ার জন্য কল্যাণকর-আব্বাসি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক :

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী শাহিদ খাকান আব্বাসি বলেছেন, পাকিস্তান ও রাশিয়ার মধ্যকার শক্তিশালী অংশীদারিত্ব শান্তি, স্থিতিশীলতা ও আঞ্চলিক সহযোগিতা বাড়াতে ভূমিকা পালন করবে।

তিনি বলেন, রুশ ফেডারেশনের সাথে সম্পর্ককে খুবই গুরুত্ব দেয় পাকিস্তান।
প্রধানমন্ত্রীর দফতর থেকে পাঠানো এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, রাশিয়ার স্টেট ডুমার চেয়ারম্যান ভাইচেস্লাভ বোলোদিনকে আব্বাসি বলেন, বাণিজ্য ও জ¦ালানি খাতসহ সহযোগিতার সব ক্ষেত্রে রাশিয়ার সাথে দীর্ঘমেয়াদি ও বহুমুখী অংশীদারিত্ব চায় পাকিস্তান। রুশ প্রতিনিধিদলটি রোববার (২৪ ডিসেম্বর) আব্বাসির সাথে দেখা করতে গেলে তিনি এ মন্তব্য করেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, দুই দেশের মধ্যে বাণিজ্য বাড়ানো এবং দ্বিপক্ষীয় অর্থনৈতিক সম্পর্ক জোরদার করার আরো সম্ভাবনা রয়েছে।

ডুমার চেয়ারম্যানকে স্বাগত জানিয়ে আব্বাসি বলেন, স্পিকারদের ছয় পক্ষীয় সম্মেলন সন্ত্রাসদমন, আঞ্চলিক নিরাপত্তা ও কানেকটিভিটি বাড়ানো এবং নিয়মিত মতবিনিময়ের একটি কার্যকর প্লাটফর্ম।

জাতীয় পরিষদের স্পিকার সর্দার আয়াজ সাদিক, বিআইএসপির চেয়ারম্যান মারভি মেমন, এমএনএ মাখদুম খসরু বখতিয়ার এবং পদস্থ কর্মকর্তারা বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।

আব্বাসি বলেন, বৈশিক সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে যুদ্ধে পাকিস্তানই সবচেয়ে বেশি মূল্য দিয়েছে। আমাদের সংগ্রাম কেবল এই অঞ্চলের নয়, পুরো বিশ্বের শান্তির জন্য।
তিনি বলেন, আফগানিস্তানের শান্তি ও স্থিতিশীলতার প্রতি পাকিস্তান আগ্রহী। তিনি বলেন, প্রতিবেশী দেশটিতে সামরিক সমাধানের মাধ্যমে সঙ্ঘাতের অবসান হবে না।

তিনি বলেন, আফগানিস্তানে আমরা আফগান-নেতৃত্বাধীন এবং আফগান-উদ্যোগের প্রতি সমর্থন অব্যাহত রাখব।

তিনি বলেন, এই অঞ্চলে নিরাপত্তা একটি বড় হুমকি হলো মাদক ব্যবসা। এই ব্যবসা থেকেই সন্ত্রাসীরা তহবিল পেয়ে থাকে।

বোলোদিন উষ্ণ অভ্যর্ত্থনার জন্য পাক প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানান। তিনি বলেন, দুই দেশের মধ্যকার সম্পর্ক আরো জোরদার হবে।

পরে আফগানিস্তান, চীন, ইরান, রুশ ফেডারেশন ও তুরস্কের সফররত স্পিকারদের সম্মানে প্রধানমন্ত্রী নৈশভোজের আয়োজন করেন।

স্পিকার্স সম্মেলনের ফাঁকে রুশ প্রতিনিধিদলের সাথে আলাপকালে সর্দার সাদিক সমঝোতা ও মৈত্রী বাড়ানোর জন্য রাজনৈতিক ও পার্লামেন্টারি নেতৃত্বের মধ্যে নিয়মিত মতবিনিময়ের ওপর জোর দেন।

সাদিক বলেন, রাশিয়াকে গুরুত্বপূর্ণ বন্ধু মনে করে পাকিস্তান। পাকিস্তানের অর্থনৈতিক ও অবকাঠামো উন্নয়নে রাশিয়া গুরুত্বপূর্ণ অংশীদার। তিনি বলেন, দুই পক্ষের অব্যাহত সম্পৃক্ততার ফলে বিদ্যমান সম্পর্ক আরো জোরদার হবে।

তিনি বলেন, পাকিস্তান ও রাশিয়া কেবল একই সমতলেই নেই, বরং গণতন্ত্র, মানব স্বাধীনতা ইত্যাদি ব্যাপারে একই মূল্যবোধ লালন করে। দুই দেশের উচিত দ্বিপক্ষীক সম্পর্ককে নতুন উচ্চতায় নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করা।

তিনি বলেন, পাকিস্তান সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে যুদ্ধে রণাঙ্গনে রয়েছে।
তিনি জনসাধারণের কল্যাণের জন্য আঞ্চলিক সহযোগিতা জোরদারের ওপর গুরুত্বারোপ করেন। তিনি বলেন, সাম্প্রতিক ঘটনাবলী পাকিস্তান, ইরান ও তুরস্ককে আরো কাছে নিয়ে এসেছে।

Comments

comments